গ্যালারি

রেসিপিঃ সাধারন অমলেট বা ডিম পোচ (সামান্য পেঁয়াজ ও কাঁচা মরিচ যোগে)


বিশেষ বার্তা দিয়ে আজকের রেসিপি লিখছি, ‘ইন্ডিয়ান পেঁয়াজে ভাল বেরেস্থা হয় না, খাবারের স্বাদকেও ক্ষতিগ্রস্থ করে! আমার মনে হয় ইন্ডিয়ান পেঁয়াজে H₂O পরিমানে বেশী থাকে, ফলে স্বাদের রান্না চাইলে বাংলাদেশী পেঁয়াজ ব্যবহার করুন!‘ এই রেসিপিতে ইন্ডিয়ান পেঁয়াজ ব্যবহার করা হয়েছিল, আমি আপনাদের পরামর্শ দিব, দাম বা ছোট বলে ছিলতে কষ্ট হলেও দেশী পেঁয়াজ ব্যভার করুন। খাবারের স্বাদ এবং মান, গুন সব কিছুই ভাল লাগবে। কষ্ট যখন করবোই, খাবার যখন রান্না করবোই, তখন অন্তত দেশী পেঁয়াজই খাব। এতে আনন্দ বাড়বে বই কম্বে না!

যাই হোক, কয়েকদিন আগে আমাদের বড় ভাবী ঢাকা এসেছিলেন, তিনি চট্রগ্রাম থাকেন। সকালের নাস্তায় আমরা ডিম পোচ বা অমলেট করছিলাম, তিনি ঠিক এভাবে আমাদের দেখিয়ে দিলেন। আমি খেয়ে মজা পেয়েছি, এভাবে ডিম পোচ (তিনি যদিও এটাকে পোচ বলেছেন আসলে অমলেটই হবে, অমলেটে অবশ্য চাইলে আরো অনেক কিছু যোগ দিতে পারেন, আমি পূর্বে আরো অনেক অমলেট দেখিয়েছি)করলে পেঁয়াজ মরিচ সফট থাকে, খাবার খেতে আনন্দ লাগে। তিনি আরো জানিয়েছিলেন, এভাবে উনার আম্মা রান্না করতেন। চলুন দেখে ফেলি, আমরা পেঁয়াজ মরিচ লবন ডিমে গুলিয়ে যে রান্নাটা করি, সেটাই একটু ভিন্ন করে। এক অংক যেমন নানানভাবে করা যায়, তেমনি এক রান্নাও অনেকভাবে করা যায়, ফলাফল সঠিক হলেই হল! চলুন, আর দেরী কি!

প্রনালী ও পরিমানঃ (ছবি কথা বলে)
20181005_104655
ছবি ১, পেঁয়াজ মরিচ কুচি নিন।  চাইলে ধনিয়া পাতার কুচিও দিতে পারেন।

20181005_105006
ছবি ২, কড়াইতে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি, মরিচ কুচি ও সামান্য লবন দিন (এটা একটা ডিমের পরিমান)।  ভাজুন।  পেঁয়াজ কুচির রঙ হলদে হয়ে আসবে (ইন্ডিয়ান পেঁয়াজ দিয়েছিলাম, ফলাফল ভাল না)।

20181005_105058
ছবি ৩, ডিম এভাবে ফাটিয়ে নিন, পেঁয়াজ কুচিতে লবন কেমন দিয়েছেন তার উপর ভিত্তি করে এক চিমটি লবন ব্যবহার করতে পারেন।

20181005_105107
ছবি ৪, ডিম দিয়ে দিন।

20181005_105123
ছবি ৫, আগুন মাঝারি।

20181005_105143
ছবি ৬, এক পিট হয়ে গেলে অন্য পিট উলটে দিন।

20181005_104930
ছবি ৭, তেল নামিয়ে তুলে ফেলুন।

20181005_104941
ছবি ৮, ব্যস হয়ে গেল।  গোল মরিচ গুড়া ছিটিয়ে দিতে পারেন।!

20181005_105320
ছবি ৯, পরিবেশনা।

20181005_105341
ছবি ১০, সকালের নাস্তায়।  একবার করেই দেখুন, আশা করি বৃদ্ধরা ও শিশুরা আনন্দ পাবে।  সাধারন আমলেটে পেঁয়াজ কুচি ও মরিচ কুচি কিছুটা শক্ত থাকে, এভাবে করলে সেটা হবে না, পেঁয়াজ কুচি নরম হবে, খেতে আনন্দ পাবে।

সবাইকে শুভেচ্ছা।

কৃতজ্ঞতাঃ মানসুরা হোসেন ও আরিফা হোসেন

3 responses to “রেসিপিঃ সাধারন অমলেট বা ডিম পোচ (সামান্য পেঁয়াজ ও কাঁচা মরিচ যোগে)

  1. basai ranna korechilam amr hsbnd er jonney.or khub bhalo legeche.thnks vhai.apner ranna dekhe amra kmn ranna korlam atar akta sight open korle vhalo hoi.

    Liked by 1 person

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s