গ্যালারি

রেসিপিঃ জিরা ভাত (আমার রেসিপি)


নানান ধরনের রান্না দেখতে দেখতে আমি নিজেও এখন নুতন রান্না করতে পারি! হা হা হা! (দুনিয়াতে কি নুতন বলে কি কিছু আছে?) যাই হোক, আমি আসলে এখন নিজের মত করেও খাবারের উপযোগী করে কিছু রান্না করতে পারি বটেই। আমার আজকের রান্না ‘জিরা ভাত’! এটা মুলত জিরার গুড়ার ঘ্রানে রান্না করা এক ধরনের ভাত। আপনি যে কোন তরকারীর সাথে খেতে পারেন, মেহমান আসলে পরিবেশন করতে পারেন। আমি আশা করি মেহমান, আপনার রান্নার প্রশংসা করবে! এমনিতে আপনি ভাত কিংবা পোলাও রান্না করেই আসছেন, একদিন কিছুটা ভিন্ন করে ভাত কিংবা পোলাও এর বদলে পরিবেশন করলে কি আসে যাবে! তাছাড়া মুখের স্বাদ পরিবর্তনের জন্য এমনি রান্নার গুরুত্ব অনেক আছে!

পরিবারের সবাই নিশ্চয় আপনার এই আইডিয়া আগ্রহের সাথে নিবে। খুব সাধারণ রান্না, তবে আগেই বলে রাখি এমনি রান্নায় চুলার ধার ছেড়ে যাবেন না। রান্না শেষ হলেই আপনি যেতে পারেন। চলুন আমার ‘জিরা ভাত’ দেখুন! খুব সাধারণ, রান্নার আইটেম আপনার হাতের কাছেই আছে। শুধু ইচ্ছা হলেই হল!

উপকরণ ও পরিমানঃ
– পোলাও চাউলঃ ৭৫০ গ্রাম, ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন। (চার জন পূর্ন বয়স্ক অনায়েশে শেষ করতে পারবে না), আপনি চাইলে খাবারের চাউল দিয়েও করতে পারবেন, অন্য একদিন সাধারণ খাবারের চাঊল দিয়ে দেখিয়ে দেব।
– পেঁয়াজ কুচিঃ হাফ কাপ
– শুকনা মরিচঃ ৮/১০টা (ভিতরের বিচি ফেলে দিতে পারেন)
– জিরা গুড়াঃ এক টেবিল চামচ (জিরা টেলে বেঁটে গুড়া করলে ঘ্রান বেশ ভাল হয়)
– হলুদ গুড়াঃ হাফ চা চামচ কম বেশি (এতে রংটা জমে উঠবে)
– এলাচিঃ ৩/৪ টা
– দারুচিনিঃ ৩/৪ পিস
– লবঙ্গঃ ৪/৫ টা
– লবনঃ পরিমান মত
– তেলঃ হাফ কাপ কম বেশী
– পানিঃ পরিমান মত, চাউলের উপর নির্ভর করবে

প্রণালীঃ (ছবি কথা বলে)
20180918_212750
ছবি ১, পাত্রে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুঁচি, শুকনা মরিচ, এলাচি, দারুচিনি, লবঙ্গ ও সামান্য লবন যোগে ভাঁজুন, পেঁয়াজ হলদে হয়ে এলে জিরা গুড়া দিন। ভাঁজুন।

20180918_212919
ছবি ২, এবার হলুদ গুড়া দিন। ভাঁজুন। আগুন মাঝারি আঁচে থাকবে।

20180918_213040
ছবি ৩, ভাঁজুন, এমনি একটা অবস্থায় এসে যাবে।

20180918_213134
ছবি ৪, এবার চাউল দিয়ে দিন।

20180918_213239
ছবি ৫, চাউল সহ ভাঁজুন।

20180918_213358
ছবি ৬, এবার পানি দিন।

20180918_213452
ছবি ৭, পানি চাউলের উপরে এক ইঞ্ছির মত হতে হবে, যারা পোলাউ রান্না করতে পারেন, আশা করি তাদের এই পানি দেয়ার সমস্যা হবে না! এই পানি চাউলের উপর নির্ভর করে, চাউল পুরাতন হলে পানি একটা বেশি লাগে। ঠিক এই সময়ে লবন দেখে নিন, এই পানি মুখে দিয়ে লবন লাগবে কি না বুঝতে পারবেন। পানিটা কটা হতে হবে। (ঠিক এই সময়েই ফাইন্যাল লবন দিন)

20180918_213613
ছবি ৮, আগুন মাঝারি আঁচে থাকবে। ঢাকনা দিন, মিনিট ১০ বা বেশি সময় লাগবে। খেয়াল রাখতে হবে।

20180918_213911
ছবি ৯, পানি কমে এও অবস্থায় এসে যাবে। নাড়িয়ে দিন।

20180918_214056
ছবি ১০, আরো কয়েক মিনিট রাখুন, তবে এই সময়ে চুলায় একটা তাওয়া দিন যাতে আগুন পাত্রে সরাসরি না লেগে তাপ লাগে। এটা অনেকটা দমের মত ব্যাপার। পাত্রের তলায় লেগে যাবার সুযোগ থাকবে না!

20180918_215042
ছবি ১১, ঝরঝরে হল কিনা দেখুন। নাড়িয়ে দিন। এই সময়ে যদি দেখেন, চাউল শক্ত আছে, তবে আরো পানি ছিটিয়ে দিন এবং নাড়িয়ে আবারো ঢাকনা দিয়ে কয়েক মিনিট রাখুন।

20180918_220753
ছবি ১২, এই নিন একদম ঝরঝরে ‘জিরা ভাত’।

পরিবেশনাঃ
20180918_222542
ছবি ১৩, যে কোন গোশত রান্না, মাছ ভাঁজা বা গাঢ় মাছের ঝোল ইত্যাদির সাথে পরিবেশন করুন।

20180918_222559
ছবি ১৪, আলাদা একটা ঘ্রানে আপনার মন ভরে উঠবে! আবারো বলি, একবার রান্না করে দেখুন না, পরিবারের সবাই কি বলে? গতানুগতিক রান্নাতো বছরের পর বছর করেই আসছেন!

সবাইকে শুভেচ্ছা। আসছি আরো আরো রেসিপি নিয়ে, আমাদের সাথেই থাকুন।

কৃতজ্ঞতাঃ মানসুরা হোসেন

2 responses to “রেসিপিঃ জিরা ভাত (আমার রেসিপি)

  1. Sundor akta gran pachchi.Mansura Vabi k shuvechha.

    Liked by 1 person

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s