গ্যালারি

রেসিপিঃ মজাদার মুরগী রান্না (তাওয়া স্টাইল)


সারা দিনে প্রচুর রেসিপি দেখার ফলে আমার মাথায় সারাক্ষন রান্নাই ঘুরে, হা হা হা! যে কোন রান্না এখন এক তুড়িতেই করতে চাই! আমাদের দেশে অনেকে ফার্মের মুরগী খেতে চান না (বিষ বা ভেজাল খাদ্য ফার্মের মুরগীকে খাওয়ানো হয় বলেও), নানান কারনে তবে আবার ফার্স্ট ফুড় দোকানে লাইন দিয়ে খেয়ে থাকেন! ঘরে ফার্মের মুরগী রান্না হলে অনেকে একটা ঘ্রান এবং স্বাদ হয় না বলে অভিযোগ করে থাকেন। আমরাও ঘরে ফার্মের মুরগী এড়িয়ে চলার চেষ্টা করি কিন্তু তবুও মাঝে মাঝে রান্না করতে হয়! গতকাল এমনি একটা রান্না করেছিলাম, যারা ফার্মের মুরগী খেতে চান, আশা করি এভাবে রান্না করে দেখতে পারেন, ভাল লাগবে। চলুন দেখে ফেলি!

উপকরণ ও পরিমানঃ
– ফার্মের মুরগীঃ এক কেজি প্রায়
– পেঁয়াজ কুচিঃ হাফ কাপ
– আদা বাটাঃ এক টেবিল চামচ (দেশী)
– রসুন বাটাঃ দুই টেবিল চামচ
– লাল মরিচের গুড়াঃ এক চা চামচ
– হলুদ গুড়াঃ এক চা চামচ (সামান্য দিয়ে আগেই গোশত মাখিয়ে নিতে হবে)
– জিরা গুড়াঃ হাফ চা চামচ
– ধনিয়া গুড়াঃ হাফ চা চামচ
– কাঁচা মরিচঃ কয়েকটা
– গরম মশলা গুড়াঃ হাফ চা চামচ
– লবঙ্গঃ ৫/৬ টা
– এলাচিঃ ৫/৬ টা
– লবনঃ পরিমান মত
– তেলঃ এক কাপের চার আগের এক ভাগ (কম তেলে রান্না ভাল, তেম একটু বাড়িয়ে দিলেও সমস্যা নেই)
– পানিঃ পরিমান মত

প্রণালীঃ (ছবি কথা বলে)
20180817_135550
ছবি ১, কড়াইতে তেল গরম করুন।

20180817_135610
ছবি ২, সামান্য লবন এবং হলুদ দিয়ে মেখে রাখা মুরগীর গোশত গরম তেলে দিন।

20180817_135735
ছবি ৩, ভাঁজুন। গোশত থেকে পানি বের হবে, ভয়ের কিছু নেই!

20180817_140417
ছবি ৪, গোশত এমনি একটা অবস্থায় এসে যাবে, এবার গোশত গুলো এক সাইডে তুলে রাখুন। (বড় তাওয়া হলে ভাল হত, তাওয়াতে এভাবে রান্না হয়) এবার এক পাশ ফাঁকা করুন বা কড়াই এক সাইড করুন। আগুন যেন এক সাইডেই লাগে।

20180817_140509
ছবি ৫, একে একে পেঁয়াজ, রসুন, আদা দিন। কয়েকটা কাঁচা মরিচ দিন।

20180817_140559
ছবি ৬, বাজারে গরম মশলার প্যাকেট পাওয়া যায়। গরম মশলা দিন।

20180817_140651
ছবি ৭, এর পর হলুদ, মরিচ, ধনিয়া, জিরার গুড়া দিন।

20180817_140732
ছবি ৮, এবার ভাল করে মিশিয়ে নিন।

20180817_140757
ছবি ৯, মাঝে মাঝে নাড়িয়ে দিন। ঠিক এভাবে মশলা গুলো মিশে তেল উপরে উঠে আসবে।

20180817_140824
ছবি ১০, এবার গোশত গুলো মিশিয়ে নিন।

20180817_140905
ছবি ১১, মাঝারি আঁচে মিশিয়ে নিন।

20180817_140917
ছবি ১২, কয়েক মিনিট পর, হাফ কাপ পানি দিন।

20180817_140941
ছবি ১৩, ঢাকনা দিয়ে আগুন মাঝারি আঁচে রাখুন।

20180817_143433
ছবি ১৪, এবার ফাইন্যাল লবন দেখুন। লাগলে দিন, না লাগলে ওকে বলে এগিয়ে চলুন। ঝোল কেমন রাখবেন, আপনি নিজেই দেখুন।

20180817_143627
ছবি ১৫,  ব্যস পরিবেশন করুন।

20180817_143658
ছবি ১৬, সাদা ভাত, রুটি, পরোটা, চাপাতি যেটা ইচ্ছা দিয়ে খেতে বসে পড়ুন।

সবাইকে শুভেচ্ছা। আসছি আরো আরো রেসিপি নিয়ে, সাথে থাকুন।

কৃতজ্ঞতাঃ মানসুরা হোসেন

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s