গ্যালারি

রেসিপিঃ ইলিশ মাছ ভাঁজা (মাওয়া ফেরীঘাট)


বাংলাদেশের মানুষ আমরা সামান্যতেই খুশি! সামান্য পেলেই আমরা অনেক বেশি খুশি হয়ে যাই! নিন, আজকে একটা সামান্য হাসির কথা দিয়েই আমাদের ‘গল্প ও রান্না’ শুরু করি!

মালিবাগ কমিউনিটি সেন্টারের সামনে ফুটপাতে একটা চা দোকান চালান বরিশালের এক বৃদ্ধ দম্পতি। আমি মাঝে মাঝে রিক্সার জন্য দাঁড়াই! প্রায়ই দেখি স্ত্রী সব সময়েই স্বামীকে কটু কথা বলে, উন থেকে চুন খসলেই স্বামীকে ত্যাড়া ব্যাকা কথা বলেন। স্বামীকে আমি কখনো প্রতিবাদ করতে দেখি নাই, বেচারা চুপচাপ কাজ করেই যায়। আজ সকালে তেমনি ঘটনা, স্ত্রী একজন কাষ্টমারকে এক টাকার কয়েনের বদলে দুই টাকার কয়েন দিয়ে দিয়েছেন, স্ত্রী স্বামীকে বকাঝকা করছিলেন, কেন তিনি একটাকার কয়েনের কোটায় দুইটাকার কয়েন রেখেছেন! দেয়ার সময় তিনি নিজে কেন দেখেন নাই, সেই নিয়ে কোন কথা নাই, বার বার অনেক কাষ্টমারের সামনে স্বামীকে বকেই যাচ্ছিলেন! পাশে চা পানরত এক ছোকড়া আজ বিল্লা সাউন্ড দিয়েই দিল, ভাইবোন মিলে দোকান চালানো ঠিক না!

গত কিছু দিন আগে আমরা চার বন্ধু মাওয়া ফেরীঘাটে গিয়েছিলাম, আমাদের উদ্দেশ্য ছিল মাওয়া ফেরীঘাটে কিছু সময় কাটানো, অনেকদিন ধরে এই ঘাটের ইলিশ মাছ ভাঁজার ছবি দেখে আসছিলাম। তাছাড়া ঢাকা থেকে এত কাছের এমনি একটা জায়গা না দেখে মরে গেলে বিধাতার কাছেও কি জবাব দেব? বিধাতা যদি জিজ্ঞেস করেন, মাওয়া ঘাটের ইলিশ ভাঁজা খেয়ে আসিস নাই কেন? আসলে আমরা ছোট ছোট বিষয়ে দেখেই খুশি, ঢাকার আশে পাশে এমন অনেক ছোট ছোট জায়গা আছে, যেখানে এখনো যাওয়া হয় নাই, অথচ যাওয়া দরকার। মাওয়া ঘাট তেমনি একটা জায়গা!

20180629_142856
ছবি ১ঃ ঢাকা মাওয়া রাস্তা ভাল তবে এই রাস্তা আরো বড় করা হচ্ছে। কারন এই রাস্তার সংযোগেই পদ্মা সেতুতে গাড়ি উঠবে।

20180629_150136
ছবি ২ঃ মাওয়া নুতন লঞ্চ, স্পীড বোড ঘাটের প্রবেশ এলাকা, বেশ খোলা মেলা, অনেক ছোট বড় দোকান এবং হোটেল গুলো এখানেই। এখানেই যে কোন একটা খাবার হোটেল আপনাকে বেছে নিতে হবে।

যাই হোক, আমরা চার বন্ধু মাওয়াঘাটে বলতে গেলে একদিন সারা সময় কাটিয়ে এলাম। দুপুরের খাবার হিসাবে সেই ইলিশ মাছ ভাঁজা, আমাদের পছন্দের ভিত্তিতে! সাদাভাত, ইলিশ ভাঁজা, ইলিশের লেজের ভর্তা, চিংডি ভর্তা দিয়েই আমরা আমাদের দুপুরের খাবার খেয়েছিলাম। আমি ইলিশের রেসিপিটা ছবিতে তুলে নিয়েছিলাম, আপনাদের দেখাবো বলে! চলুন দেখে ফেলি। আপনারা যারা ইলিশ মাছ ভাঁজি ঘরে করতে চান তারাও এই রেসিপিটা দেখে নিতে পারেন, আশা করি কাজে লাগবে।

পরিমান ও উপকরণঃ
– ইলিশ মাছের টুকরাঃ আপনার ইচ্ছা মত নিন, মশলাপাতিও সেই মোতাবেক দিতে হবে তবে আমি ১০ টুকরার মত কল্পনা করে মশলাপাতি লিখে দিলাম।
– মরিচ গুড়াঃ ঝাল বুঝে, এক চা চামুচ
– হলুদ গুড়াঃ এক চা চামচের সামান্য কম
– জিরা গুড়াঃ হাফ চা চামচ
– ধনিয়া গুড়াঃ হাফ চা চামচ
– লবনঃ পরিমান মত
– তেলঃ ভাঁজার জন্য যা লাগে
– তেলে ভাজা শুকনা মরিচঃ ঝাল বুঝে কয়েকটা, ঝাল বেশী চাইলে বেশী
(এই হোটেল গুলোতে এমন মশলাপাতি আগেই মিশিয়ে রাখা হয়, যাতে কাষ্টমার আসার সাথে সাথে মাছে মাখিয়ে ভেঁজে দেয়া যায়)

প্রনালী ও গল্পঃ
20180629_150322
ছবি ৩ঃ প্রায় হোটেলের সামনেই ইলিশ মাছ এভাবে সাজিয়ে রাখা হয়!

20180629_150441
ছবি ৪ঃ আমরা এই মাছ গুলো রান্না সহ কন্টাকে কিনে নিয়েছিলাম।  দুটো লেজ এবং দুটো ডিম, ১২ পিস ইলিশের টুকরা, মোট নয়শত টাকা। ইলিশের লেজ দুটো দিয়ে একটা ভর্তা বানাতে বলেছিলাম, সেটার রেসিপিও আপনাদের দেখিয়েছি!

20180629_150501
ছবি ৫ঃ মাছ গুলো ধুয়ে ভাল করে পরিস্কার করে নিতে হবে।

20180629_150529
ছবি ৬ঃ লবন সহ মশলা গুলো দিয়ে দিন।

20180629_150622
ছবি ৭ঃ ভাল করে মাখিয়ে নিন।

20180629_150719
ছবি ৮ঃ এবার মাছ ভাঁজার পালা, তাওয়ায় তেল গরম করে মাছ দিন। যে কোন মাছ ভাঁজার সময় বেশী সাবধানতা নেয়া উচিত।

20180629_150746
ছবি ৯ঃ আমরা খাবারের ছবি তুলি এভাবে! হা হা হা, আমার এই সেই বন্ধু, যার ছবি তুলে আমি আনন্দ পাই কারন তার ছবি তুলে নেটে যে কোন স্থানে দিলে আমার কোন পারমিশনের দরকার পড়ে না এবং এতে সেও কিছু মনে করে না!  অনেকটা হুমায়ুন আহমদের স্টাইলে চলাফেরায় আমার এই বন্ধু অনেক অনেক ভাল মনের এবং বিধাতাও তাকে বিশাল ভালবাসা দিয়ে এই দুনিয়াতে পাঠিয়েছেন।

20180629_151227
ছবি ১০ঃ এক পিট ভাঁজা হয়ে গেলে অন্য পিট উলটে দিন।

20180629_151129
ছবি ১১ঃ সাথে বেগুণ ভাজাও চলছে। এমনি খোলা তাওয়া এবং চরম আগুনে রান্না সব সময়েই দারুন স্বাদের হয়।

20180629_151640
ছবি ১২ঃ ব্যস, হয়ে গেল!

20180629_152213
ছবি ১৩ঃ পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত।

20180629_181046
ছবি ১৫ঃ আমাদের বিকালে ফিরে আসার রাস্তা,  বৈকালিক একটা আলাদা সৌন্দর্য্য আছে এই রাস্তায়।

20180629_195503
ছবি ১৬ঃ ঢাকায় ফিরে যথাযত সেই জানযট! আহ…।

সবাইকে শুভেচ্ছা। আসছি আরো আরো নুতন নুতন রেসিপি নিয়ে, সাথে থাকুন।

2 responses to “রেসিপিঃ ইলিশ মাছ ভাঁজা (মাওয়া ফেরীঘাট)

  1. ইয়াম্মি……….

    Liked by 1 person

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s