Gallery

আড্ডাঃ রাজকন্যা নামিরাহ’র জন্ম দিনে।


রাজকন্যা নামিরাহ আমাদের প্রিয় বন্ধু ডাঃ নিয়াজ মাওলাডাঃ ফারজানা জামান পরিবারের প্রথম সন্তান। গত শুক্রবার  রাজকন্যা নামিরাহ জন্মদিনে দাওয়াত পেয়ে অত্যান্ত খুশি হই এবং অনুষ্ঠানে যোগ দেই স্বপরিবারে। ভার্চুয়াল থেকে কি করে বাস্তবে একজন ভাল বন্ধু পাওয়া যায়, এটার চ্রম উদাহরণ হচ্ছেন আমাদের এই ডাঃ নিয়াজ মাওলা। আগেই বলে নেই, আমি নিশ্চিত আপনি এই ডাক্তার সাহেবের সাথে একবার কথা বললে আপনিও তার ভাল বন্ধু হয়ে পড়বেন! আমি এখন ডাঃ নিয়াজ ভাইয়ের সাথে আমার স্কুল জীবনের বন্ধুদের মতই আচরণ করি, মজা করি! যদিও ডাঃ নিয়াজ আমার অনেক অনেক বছরের ছোট, হা হা হা! যাই হোক, এখন মনে হচ্ছে এই বন্ধত্ব আজীবন বজায় থাকবে। আশে পাশে ডাক্তার বন্ধু থাকলে কার না ভাল লাগবে!

যাই হোক, আপনারা যারা নিয়মিত অনলাইন, বাংলা ব্লগে বা ফেসবুকে আছেন তারাও এই ডাক্তার সাহেবকে চিনে থাকবেন। তিনি লেখালেখির জগতেও চরম, নানান বাংলা ব্লগে এক সময়ে অনেক লিখেছেন এবং পাশাপাশি টিভি অনুষ্ঠান উপস্থাপক এবং প্রয়োজক হিসাবেও তিনি সমান জনপ্রিয়। আমি তার চিন্তা চেতনাকে এপ্রিসিয়েট করি এবং তার উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করি। পরে এক সময়ে, তাকে নিয়ে আরো বিস্তারিত লেখার ইচ্ছা থাকলো। আজ চলুন একটা ভার্চুয়াল ট্যুর হয়ে যাক, আমাদের রাজকন্যা নামিরাহ’র জন্মদিনের অনুষ্টানের। ভাল ছবি তুলতে পারি নাই কারন গুলো ছিল মোবাইলে ছবি তোলা ভাল দেখায় না, ভীড়বাট্টা এবং আমাদের ছোটমিয়া ব্যালটকে পাহারা দেয়া!


ছবি ১, ধানমন্ডি লেকের পাড়ের এই রেষ্টুরেন্ট সন্ধ্যার পর এক মায়াবী আভা ছড়ায়!


ছবি ২, রেস্টুরেন্টে প্রবেশপথটা বেশ সুন্দর হয়েছিল।


ছবি ৩, সদর আমন্ত্রনের এই ব্যবস্থা ভাল লাগছে।


ছবি ৪, রাজকন্যা নামিরাহ’র বাড়ীর ছেলে মেয়েদের একই পোষাক! (দুঃখিত মোবাইলে মেয়েদের ছবি তোলার সাহস হয় নাই!)


ছবি ৫, কেক কাটারর স্টেজ অপুর্ব। আলোর খেলা দেখার মত ছিল।


ছবি ৬, পানসী রেষ্টুরেন্টের ভেতরের আইডিয়া বেশ চমৎকার। এক পাশে কনফারেন্স টাইপ অন্য পাশে রেষ্টুরেন্ট এবং মাঝে খোলা জায়গা।


ছবি ৭, অতিথিদের একাংশ।


ছবি ৮, শুরুতেই চটপটি বা ফুসকা দিয়ে মুখকরন!


ছবি ৯, ভেতরের জায়গাটার আড্ডা এবং ছোট শিশুদের জন্য খেলার ব্যবস্থা আনন্দদায়ক ছিল।


ছবি ১০, কফি পানের ব্যবস্থাও ছিলো। ঝাল চটপটি খেয়ে মিষ্টি কফি মন্দ নয়!


ছবি ১১, আমাদের ছোট মিয়া নেমে পড়ছিল!


ছবি ১২, রেষ্টুরেন্টের এই পানির ফ্লোয়ারা ভাল লাগবে।


ছবি ১৩, ছোট মিয়াকে কিছুতেই তুলে নেয়া যাচ্ছিলো না।


ছবি ১৪, মাশাআলাহ, এই হচ্ছে আমাদের ছোট রাজকন্য নামিরাহ। আমি কয়েকবার ছবি তোলার চেষ্টা করেছি, পারি নাই। এটাই একমাত্র ছবি!


ছবি ১৫, কেক কাঁটার আমন্ত্রন শুনে সবাই জড় হয়ে পড়ছেন।


ছবি ১৬, সবাই ভাবে পড়েছে!


ছবি ১৭, এদের থাকিয়ে রাখার জন্য মোবাইল ছাড়া অন্য কোন ব্যবস্থা নেই!


ছবি ১৮, শিশুদের জন্য অনেক ভাল ব্যবস্থা ছিল এটা।


ছবি ১৯, মিকি আর মিনি শিশুদের অনেক আনন্দ দিয়েছে। (এভাবে পার্টিতে সেজে শিশুদের আনন্দ দেয়া একটা পেশা হতে পারে তা এদের দেখলে বুঝা যায়। এদের জন্য বিশেষ ভালবাসা।)


ছবি ২০, খাবার দাবারের চলুন, বুফে!


ছবি ২১, স্যুপ দিয়ে শুরু!


ছবি ২২, বাঙ্গালীর খাবার।


ছবি ২৩, বেরহানী, আহ!


ছবি ২৪, ফিরনির পিরামিড!


ছবি ২৫, জন্মদিনে কেক না খেলে কি চলে!


ছবি ২৬, হযরত আলী সাহবের পান না খেলে কি চলে! খাবারের শেষে পান, আহ, আলাদা আনন্দ!


ছবি ২৭, যাই হোক, আমার ছবিতে ডাঃ নিয়াজ এবং তার পরিবারের বেশি ছবি নেই, বেশ কয়েকবার চেষ্টা করেছি, নামিরাহকে ধরতেই পারি নাই!


ছবি ২৮, ডাঃ নিয়াজ এবং ডাঃ ফারজানার নেট থেকে পুরানো একটা ছবি এই পোষ্টে যোগ করে দিলাম। মিষ্টি হাসির এই যুগলের জন্য আমাদের ভালবাসা থাকলো।


ছবি ২৯, পরিবার পরিজন নিয়ে এভাবে দাওয়াত বা ঘুরতে যেতে অনেক মজা লাগে কিন্তু আপনাদের এই ঢাকা শহরে কোথায়ও কি যাবার জায়গা আছে? রামপুরা থেকে ধানমন্ডি সিএঞ্জিতে যেতে সময় লেগেছে দেড় ঘণ্টা! কাকে কি বলবেন? শিশুদের নিয়ে রাস্তায় বের হওয়া মানেই মনে হয় বিপদ!


ছবি ৩০, যাই হোক, বাসায় ফিরেই চা! ওয়াও।

ধন্যবাদ নিয়াজ ভাই এবং ফরজানা ভাবী। আপনাদের জন্য আমাদের দোয়া থাকলো। আনন্দে কাটুক আপনাদের সারা জীবন। রাজকন্যাকে নিয়ে আপনাদের জীবন আরো মধুময় হয়ে উঠুক।

রেসিপি প্রিয় বন্ধুদের শুভেচ্ছা, আপনারা দাওয়াত দিলেও আমি এমনি স্বপরিবারে হাজির হব! হা হা হা।

(অনুষ্টানে আরো কয়েকজন বন্ধু দেখা পেয়েছিলাম, যাদের অনেকদিন পরে দেখে ভাল লাগছিলো)

Advertisements

12 responses to “আড্ডাঃ রাজকন্যা নামিরাহ’র জন্ম দিনে।

  1. Happy time passing ……………thanks!

    Liked by 1 person

  2. Apnar kono prgram a recpy frnd der (amade) invite korleo amra sho poribare hajir hobo…..hahahahaaa

    Liked by 1 person

  3. নাঈফা চৌধুরী অনামিকা

    চমৎকার পোস্টের সুবাদে আমরা যারা সশরীরে নামিরাহ মামণি’র জন্মদিনে উপস্থিত থাকতে পারিনি (কিন্তু মন পড়ে ছিলো সেখানেই), তাদেরও হয়ে গেল জমজমাট ট্যুর! প্রিয় সাহাদাত ভাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ! সেইসাথে ভাবীকে কে উষ্ণ সালাম, আর উপচে পড়া স্নেহ আমার আব্বুজীদের জন্য! মাশাল্লাহ, দারুণ লাগছে দেখতে ছবিতে ওদের!
    ফুলবাগানের রাজকন্যার জন্মদিনে আকাশছোঁয়া ভালবাসা! দোয়া করি মামণি তুমি মানুষের মত মানুষ হও – মন হোক আকাশের মত উদার, হাওয়ার মত স্বচ্ছ, সাগরের মত গভীর, স্পর্শকাতর!

    Liked by 1 person

  4. আর কি বলবো! উদরাজী ভাইয়া, আপনার পোষ্ট পড়ে আমি খুবই আপ্লুত। অনুষ্ঠানের দিন খুব ব্যস্ততার জন্য তেমন সময় দিতে পারিনি, এজন্য খুব অস্বস্তিতে আছি! আমার রাজকণ্যার জন্য দোয়া কইরেন। সে যেনো অনামিকা আপুর বলা মতো- মানুষের মত মানুষ হতে পারে, তার মন যেন হয় আকাশের মত উদার, হাওয়ার মত স্বচ্ছ, সাগরের মত গভীর ও স্পর্শকাতর!

    পুনশ্চঃ কমেন্টে কিভাবে ছবি এড করা যাবে?

    Liked by 1 person

    • ধন্যবাদ নিয়াজ ভাই। আমাকে আপনি মনে রাখেন এটাই আমার বড় পাওয়া। মামনি রাজকন্যাকে কোলে নিতে পারি নাই বলে আমাদের কিছু দুঃখ রয়ে গেছে! যাই হোক, চান্স পেলে আমি মোবাইলে ওর কিছু ছবি তুলতে চাই!
      আপনার ছবি গুলো ধারাবাহিক ভাবে ফেবুর একটা ফ্লোল্ডারে তুলে দিন, আমরা দেখে নিব।
      শুভেচ্ছা এবং আবারো পরের বছরের দাওয়াত চাই। হা হা হা… ভালবাসা নিন।

      Like

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s