Gallery

বিয়ে শাদীর খাবার দাবার ও অন্য কিছু – ১১ (বোন মেরিনার বিয়ে)


বিবাহের দাওয়াত না পাইলে খারাপ লাগে, আবার পাইলেও মেজাজ ধরে যায়! আপনাদের এই ঢাকা শহরে কম বিবাহের দাওয়াত খাই নাই, নিজেও এই শহরে বিবাহ করেছি, বেশ কয়েকটা বিবাহে সাক্ষী সহ উকিল হয়েছি! বলা চলে, বিবাহের দাওয়াতে আমার অভিজ্ঞতা মোটামুটি পিএইডি লেভেলের! তবে পোলাপাইন নিয়া বিবাহ খেতে গেলে জান ত্যান্যা ত্যান্যা হয়ে পড়ে, আজকেও আবার বুঝলাম। যে পোলা সারাদিন ঘরময় হেঁটে বেড়ায়, বিবাহের হল ঘরে যেয়ে মাটিতে নামে নাই, আজকের বিবাহের খাবার বেশ মজাদার ছিল, তেমন খেতে পারি নাই, পোলার জ্বালায় এমন কি পানি না খেয়ে বাসায় ফিরে আসতে বাধ্য হয়েছি!

যাই হোক, আমি বিবাহের দাওয়াত পেলে মনে মনে চিন্তা করি, এই বিবাহ নিয়ে অন্তত একটা ব্লগ লেখা যাবে। আমি দাওয়াতের ফাঁকে ফাঁকে আমার লেখার মেটেরিয়াল খুঁজি। চলুন, আমাদের মেরিনার বিয়ে নিয়ে কিছু কথা শুনি ও ছবি দেখি। বোন মেরিনার বিয়েটা প্রেমের বলে শুনেছি, অনেক দিনের পরিচিত ওরা, শুরুতেই ওদের জন্য দোয়া করি, সংসার আনন্দের হউক, সময় কাটুক আনন্দে।

বিয়েতে আমরা চারজন এক রিক্সায় বের হয়েছিলাম (বাসার কাছেই বিবাহের জায়গা ছিল) তবে মাঝ পথে গিয়ে বুঝলাম, এখন আর আমাদের চারজন এক সাথে রিক্সায় চড়া যায় না, আমরা দুইজনেই মোটা হয়েছি অনেক। মাঝ পথে তাই অন্য আর একটা রিক্সা নিতে হল। এখন সমস্যা হচ্ছে ছেলেরা কে কোন রিক্সায় কার সাথে উঠবে (এটা আমাদের এই প্রথম আলাদা রিক্সায় উঠা)! যাই হোক পরে আমার সাথে ছোটটা এবং বড়টা তার মায়ের সাথে উঠল। রিক্সা দুটি চলল পাশাপাশি, আগামীতে কোথায়ও যেতে হলে এভাবেই আলাদা করেই যেতে হবে!


আমরা স্বাভাবিক ভাবেই একটু দেরী করে বের হয়েছিলাম। প্রবেশ করে দেখলাম বিবাহের খাবার দাবার চলছে। আজকাল চাইনিজ রেষ্টুরেন্ট গুলোতে বিবাহের অনুষ্ঠান অহরহই হচ্ছে, এবং পাবেন দেশই খাবারই! তবে আমার মনে আছে এক সময়ে চায়নিজ রেষ্টুরেন্ট গুলোতে  বিবাহ বা অন্য কোন অনুষ্ঠান হলে চাইনিজ খাবার খাওয়ানো হত, অন্তত স্যুপ, চিকেন ফ্রাই, ফ্রাইড রাইস তো মাষ্ট আইটেম ছিল। এখন আর তা হয় না, চায়নিজ হোটেলে বসে দেশী বাংলা খাবার তবে ভেজিটেবল রান্নাটা চায়নিজ স্টাইলে করার একটা চেষ্টা থাকে।


ছবিতে যাদের দেখছেন তাদের বাস্তবে এত শান্ত ভাবার কারন নেই, দুইটাই চরম দুষ্টামী করে সময় কাটায়। বিয়ের হল রুমের প্রবেশের পর থেকে ছোটটা কোল থেকে আর নামে নাই, এই ছবিটা তোলার জন্য মাত্র কয়েক সেকেন্ড চেয়ারে বসেছিল।


বিবাহ আসলে আমাদের দেশের একটা চমৎকার সামাজিক অনুষ্ঠান, এই অনুষ্ঠানে আমাদের নারী পুরুষেরা সামান্য একটু আড্ডা বা একসাথে হবার সুযোগ পায়, তবে আমাদের নারীরা এই সামাজিক অনুষ্ঠানে হালকা পাতলা সাজুগুজুর একটা সুযোগ পেয়ে থাকেন, এটা কম কিসে? উপভোগ্য বিষয় এটাও। বড় বড় বিয়ে শাদীতে এটা আরো চরম আকার ধারন করে! শাড়ী গহনার একটা প্রদর্শনী চলে!


ছোট এই রেষ্টুরেন্টের জানালার কাঁচে এই পানির পড়ার দৃশ্য মন ভাল করে দেয় তবে আমরা পৌছানোর পর বাইরেও বৃষ্টি শুরুর ভাব হয়েছিল, পরে বৃষ্টি এসেছিল।


ছোট পোলার জ্বালায় কোথায়ও বসে শান্তি ছিল না, নিচে সামান্য দাঁড়াবে তাও পারছিলাম না, এদিকে কোলে নিয়েও দাঁড়িয়ে থাকা কষ্টকর হচ্ছিলো। ফলে জলদি খেতে বসে গেলাম, ওকে একটা চেয়ারে বসিয়েই। এর পূর্বে দেখেছি, হাতে খাবারের কিছু দিলে শান্ত হয়ে বসে থাকে এবার তাতেও মানছিলো না।


ঝরঝরে পোলাউ।


রোষ্ট কাবাব।


ভেজিটেবল।


বোরহানী।


এই হচ্ছে আমার প্লেট। কোন রকমে নাকে মুখে খেয়ে উঠতে হয়েছিল। খাবার গুলো সুস্বাদু ছিলো। গরুর রেজালার ছবি তুলতে পারি নাই।  মোটামুটি এই হচ্ছে আমাদের মেরিনার বিয়ের অনুষ্ঠান।


ওহ, খাবার শেষ করার পরেই ছোট ছেলেকে নিয়ে বের হয়ে পড়লাম, তখনো জামাইরাজা এসে হাজির হতে পারেন নাই। কোন রকমে এই ছবিটাই আগে তুলেছিলাম, সেটাই দেখিয়ে দিচ্ছি। খুব ইচ্ছা ছিল বোন মেরিনা এবং তার স্বামীর ছবি তুল্বো সেটা হয়ে উঠে নাই! ভাগ্যে যা লিখা থাকে তাই হয় আর কি!

যাই হোক, ছোট ছেলেকে নিয়ে বৃষ্টির মধ্যেই আমি ২০ টাকার রিক্সা ভাড়া ১০০ টাকার সিএনজিতে উঠে পড়লাম, সাথে বড় ছেলেও যোগ দিলো। ম্যাডাম পরে আসবেন বলে জানালেন। ব্যাপার না, ছেলেদের আমি একাই রাখতে পারি! পেটে দানা পানি থাকলে এবং দুষ্টামী করার পূর্ন স্বাধীনতা দিলে ওরা দুইটা কোন কথা বলে না! বাসায় ওরা নিশ্চিত মনে ঘন্টার পর ঘন্টা থাকতে পারে!


বাসায় ফিরেই ড্রাইনিং টেবিলে থাকা গ্লাস দিয়ে ছোট ছেলেকে পানি খাওয়ালাম (লাইট না জালিয়ে হালকা অন্ধকারেই বলা চলে), নিজেও খেলাম। কেমন লিপিষ্টিকের ঘ্রান পেলাম! লাইট জালিয়ে ছোট ছেলের মুখের দিকে তাকিয়ে দেখি ঠোঁটের পাশে লিকিষ্টিকের দাগ! ওকে নামিয়ে গ্লাস দেখলাম! ম্যাডাম বাসা থেকে এই গ্লাসে পানি খেয়েই বের হয়েছিলেন বলে মনে হল!

এই তো দুই দিনের দুনিয়া!

বিয়ে শাদীর খাবার দাবার ও অন্য কিছু – ১০ (কাজী আনিকার বিয়ে)

8 responses to “বিয়ে শাদীর খাবার দাবার ও অন্য কিছু – ১১ (বোন মেরিনার বিয়ে)

  1. Fatafati golpo.. pura golpo ek dome sesh korlam…. besi ….moja pailam golper last Eposode a…লিপিষ্টিকের ঘ্রান পেলাম!…..vai valo thaken doa kori…

    Liked by 1 person

  2. লেখাটি মজার ছিল। আপনার নিজের এবং আপনার পরিবারকে উপস্থাপন ভঙ্গিটা সত্যিই ন্যাচারাল। আর মাঝে এসে খাবারের ছবির মাঝে বোরহানির ছবি দিয়ে এখন তো বোরহানির তৃষ্ণা লাগিয়ে দিলেন।

    তবে শেষ প্যারাটাই ছিল সবচেয়ে বেশি মজার :p

    Liked by 1 person

    • ধন্যবাদ অলিভার ভাই।
      লিখতে আর পারছি কই, কত ভয়ে ভয়ে লিখি! তবে চেষ্টা থাকে আমাদের সাধারন জীবনের ঘটে যাওয়া বিষয় গুলোই তুলে ধরার। ধন্যবাদ আপনাকে, আপনি পজেটিভ ভাবে নিয়েছেন। এত সাধারন করে লিখেও তো মনে হয়, অনেকে আমাকে ভুল বুঝতে পারে! ভয়ে থাকতে হয়। হা হা হা…।। যাই হোক, আমাদের এগিয়ে যেতেই হবে। আশা করি সাথে থাকবেন, আগামী দিন গুলোতেও। শুভেচ্ছা।

      Liked by 1 person

  3. ভাই, সত্যি বলেছেন। আমাদের মত মধ্যবিত্ত্বের সাধ আছে ষোলআনা কিন্তু সাধ্য তো নেই।

    চাইনিজে বিয়ের অনুষ্ঠানে বাঙালি খাবার আমার ভালো লাগেনা। তবে চাইনিজ খাবার সবাই পছন্দ করেনা, এটাও ঠিক।

    লিপষ্টিকের স্বাদ কেমন? :p

    Liked by 1 person

    • ধন্যবাদ রান্নাতো বোন।
      যত জ্বালা মধ্যবিত্তদের জন্যই। শান্তি নেই। হ্যাঁ, যখন এই ধরনের চাইনিজ রেষ্টুরেন্টে চাইনিজ খাবার দেয়া হত তখন অনেকেই রাগ করতে দেখতাম! হা হা হা… এখন দেখি সবাই পেট পুরে খায়। তবে আজকাল দেয়ার সময়ে অনেক ভেবে চিনতে দেয়া হয়, এক বারের বেশি চাইলে কেমন করে তাকায়! হা হা হা…

      (হা হা হা, আপনিও ………।।)

      শুভেচ্ছা নিন।

      Like

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s