Gallery

রেসিপিঃ হাঁসের মাংসের কালিয়া (৯ লক্ষ বার পেইজ হিটে আপনাদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন)


পারসোন্যাল রেসিপি সাইটে ৯ লক্ষ হিট, বিষয়টা অনেক আনন্দের। রেসিপির প্রতি আপনাদের ভালবাসা প্রমানিত হয়। এতবার আপনাদের পেইজ দেখা সত্যই আমাদের আনন্দে দেয়, আমাদের আগামী পথ চলা আরো সহজ/কঠিন করে দেয়! বিশেষ করে যারা আপনারা নুতন আসেন, নানান লিঙ্ক ধরে বা নানান সার্চ ইঞ্জিন ধরে নুতন এসে আমাদের রেসিপি দেখে আমাদের বাহবা দিয়ে যান, তাদের কথা এই সময়ে মনে পড়ছে। এই সাইটে প্রতি দিন এমনি নুতন ভিজিটরের সংখ্যাই বেশী! পুরাতন ভিজিটর হয়ে গেলে, সপ্তাহে বা মাসে একবার আসেন এবং একবার এসেই নুতন সব পোষ্ট দেখে যান। তাই প্রতিদিন নুতন ভিজিটরদের প্রতি আমরা আলাদা নজর রাখি! হা হা হা।

আমাদের আর এক শ্রেনীর ভিজিটর আছেন, যারা ঘন্টায় ঘন্টায় আসেন এবং দেখেন নুতন কি পোষ্ট এল, নুতন কি রেসিপি এল! আমাদের সমর্থ থাকলে এবং রেসিপিকে যদি পেশা হিসাবে নিতে পারতাম তবে এই শ্রেনীর ভিজিটরদের জন্য আমি কাজ করে যেতাম। হা হা হা… অসম্ভব ব্যাপার!

আসলে মোট কথা এই যে, আপনারা যারাই আমাদের সাইটে আসেন, দেখেন আমরা আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ। আপনারা আপনাদের মুল্যবান সময় এবং বাইটস নষ্ট করে আসেন, আপনাদের প্রতি আমাদের ভালবাসা জানাই। আপনারা না থাকলে আমাদের পক্ষে এত রেসিপি লিখা সম্ভব হত না। হয়ত আমরা আমাদের উৎসাহ হারিয়ে ফেলতাম! আপনারাই আমাদের উৎসাহ, পথ পাথেয়, আমাদের ভালবাসা। আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ এবং শুভেচ্ছা।

চলুন আজ একটা মজাদার রেসিপি হয়ে যাক! নয় লক্ষ হিট উপলক্ষে একটু আলাদা রেসিপি। হাঁসের মাংসের কালিয়া! তবে প্রথমে বলে নেই, এই রান্নাকে কেন কালিয়া বলা হয় তা আমাদের জানা নেই। তবে এই রেসিপি যুগ যুগ ধরে আমাদের খাবারের তালিকায় চলে আসছে এবং এটা একটা আমাদের একটা প্রাচীন রান্না। দেশের নানা হোটেলেও এই রান্না পাওয়া যায়। চলুন রান্না ও রেসিপি দেখে ফেলি!

উপকরন ও পরিমাণঃ
– একটা হাঁস, এক কেজি বা বেশী (চমড়া ফেলা হয় নাই)
– পেঁয়াজ কুঁচি, হাফ কাপের বেশী
– দারুচিনি, এক ইঞ্চি, ৩/৪ পিস
– আদা বাটা, দুই টেবিল চামচ
– রসুন বাটা, দেড় টেবিল চামচ
– লাল মরিচ গুড়া, এক চা চামচ (ঝাল বুঝে)
– হলুদ গুড়া, এক চা চামচের কিছু কম
– পরিমাণ মত লবণ (প্রথমে কম লবনেই শুরু করতে হবে)
– পরিমাণ মত তেল (বা হাফ কাপের কম)
– পানি (অতিরিক্ত কিছু পানি গরম করে রাখাই উত্তম)

বিশেষ মশলা মিক্স গুড়াঃ
(নিন্মের মশলা গুলো কড়াইতে টেলে বেটে গুড়া করে নিতে হবে, প্রণালীতে ছবি দেয়া হয়েছে এবং শেষে এই মশলা মিক্সের ছবি দেখুন)
– জয়ত্রি, সামান্য
– জিরা, দুই চিমটি
– এলাচি, মাঝারি ৪/৫ টা
– লবঙ্গ, ৮/৯ টা
– শুকনা মরিচ, ৩/৪ টা মাঝারি
– মেথি, দুই চিমটি
– তেজপাতা, বড় একটা
– পাঁচ ফোঁড়ন, দুই চিমটি
– গোল মরিচ গুড়া, দুই চিমটি
(আমাদের ছবির মশলার সাইজ কিছুটা ভিন্ন হয়েছে)

প্রস্তুত প্রণালীঃ
হাঁস পরিস্কারঃ

হাঁসের লোম পরিস্কার করতে হালকা আগুনে পুড়িয়ে নিতে হয় এবং একটা একটা করে বেছে বেছে লোম কুপ গুলো তুলে নিতে হয়। পুরো কাজটা সাবধানে করতে হবে, হাত ও শরীরের যত্ন নিতে হবে আগে, সামান্য ভুল করা চলবে না।


হাঁস কাটার মধ্যেও একটা ব্যাপার আছে, হাড় গোড় দেখে কাটতে হয়। এতে মাংস গুলো সঠিকভাবে থাকে।

মশলা প্রস্তুতঃ

উপরের বিশেষ মশলা মিক্স এভাবে একটা কড়াইতে টেলে নিয়ে বেটে পাউডারে বা গুড়া করে নিতে হয়।

মুল রান্নাঃ

কড়াইতে তেল গরম করে প্রথমে পেঁয়াজ কুঁচি দিন, সাথে দিন সামান্য লবন এবং দারুচিনি। ভাঁজুন, আগুন মাধ্যম আঁচে রাখুন।


পেঁয়াজ কুঁচি একটু হলদে হয়ে এলে আদা ও রসুন বাটা দিন এবং ভাঁজুন।


এবার লাল মরচ গুড়া এবং হলুদ গুড়া দিন।


এক কাপ পানি দিন এবং ভাল করে মিশিয়ে নিন।


ভাল করে কষিয়ে তেল উপরে উঠিয়ে নিন।


তেল উপরে উঠে গেলে ধুয়ে রাখা হাঁসের মাংস নিন।


এবং দিয়ে দিন।


ভাল করে মিশিয়ে নিন। আগুন মাধ্যম আঁচে থাকবে। কিছুক্ষন পরে এক কাপ গরম পানি দিন এবং আবারো মিশিয়ে নিন।


কিছুক্ষনের মধ্যে এই অবস্থায় এসে যাবে।


মাংস নরম না হলে আরো এক কাপ পানি দিতে পারেন এবং আগুন মাধ্যম আঁচে রেখে ঢাকনা দিন। চুলার ধার ছেড়ে যাবেন না, মাঝে মাঝে নাড়িয়ে দিন।


এই রকম দেখাবে।


তবুও মাংস নরম না হলে আবার পানি (গরম) দিতে পারেন।


এই রকম দেখাবে।


হ্যাঁ, এবার সেই বিশেষ মশলা মিক্স দিয়ে দিন এবং ভাল করে নাড়িয়ে মিশিয়ে নিন।


ঢাকনা দিয়ে মাঝারি আঁচে রাখুন আরো কিছু সময়।


ঝোল কেমন রাখবেন সেটা আপনি নিজেই সিদ্ধান্ত নিন। তবে এই অবস্থায় ফাইন্যাল লবন দেখুন, লাগলে দিন, না লাগলে ওকে বলে আগে বাড়ুন।


চুলা থেকে নামিয়ে কিছু সময়ের জন্য রাখুন।


পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত।


আহ, দারুন। হাঁসের মাংসের স্বাদ নিতে চাইলে কালিয়ার বিকল্প নেই! একদিন হালকা একটু কষ্ট করে করেই দেখুন না! হাঁসের মাংসের সাধারন রান্নাতো অনেক খেলেন এবার একটু ভিন্ন করে দেখুন।

আমাদের রান্না টেষ্টার বুলেট এই কালিয়া খেয়ে আবারো একদিন রান্নার জন্য আগেই বুক করে দিয়েছে!

সবাইকে শুভেচ্ছা। আমরা আসছি আরো আরো নুতন নুতন রান্না নিয়ে।

কৃতজ্ঞতাঃ মানসুরা হোসেন

Advertisements

7 responses to “রেসিপিঃ হাঁসের মাংসের কালিয়া (৯ লক্ষ বার পেইজ হিটে আপনাদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন)

  1. Bhaiya,,,, u r just great,,, I just love the recipy.
    অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে।।।

    Like

  2. Excellent receipy, Carry on Shahadat Bhai.

    Liked by 1 person

  3. Awesome ata amr anak kage diea se….

    Like

  4. ভাইয়া এটা কালিয়া নয় ভুনা হয়েছে। কালিয়াতে ঝোল ও আলু থাকে। 🙂

    Liked by 1 person

  5. দারুণ!! হাঁসের মাংস ভুনার একদম পারফেক্ট একটা রেসিপি!!!! চালের রুটির সাথে বেশ জমবে!! কিন্তু শীতটা এখনো সেভাবে জাকিয়ে বসেনি বলে এখনও হাঁসের মাংস খেতে পারছিনা !!!
    চামড়াটা রেখে একদম সওয়াবের কাজ করেছেন! আজকাল হাঁস ও ড্রেসিং করিয়ে আনা যায় দেখেছি, তাই আশা করি হাস খাওয়া আর কারো জন্য কঠিন হবে না!!!
    উপরের আন্টি যেটা বললেন,এই জিনিসটা নিয়েই আমার কনফিউশন, কালিয়া আর ভুনার মধ্যে পার্থক্য এখনো জানলামম না!!

    সবশেষে নয় লক্ষ হিটের জন্য অভিনন্দন, আশা করি এরকম ভাবেই পোস্ট আসবে এবং আমিও একটু পর পর এসে চেক করে যাব নতুন কিছু দিলেন কি না!!

    শুভেচ্ছা ও ভালোলাগা

    Like

  6. দারুণ! শীত এসে গেছে। হাঁসের মাংস খাওয়ার আনন্দই আলাদা। ধন্যবাদ চমৎকার এবং সময়োপযোগী রেসিপির জন্য।

    Like

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s