Gallery

রেসিপিঃ চিকেন উইথ ম্যাংগো/ ম্যাঙ্গো চিকেন (গরমে আরাম)


সুমন বিশ্বাস, আমার ফেবু বন্ধু, কলকাতার তরুণ ছেলে। তিনি মেসেজে ইনবক্সে লিখেছেন, কথোপতন গুলো তুলে দিচ্ছি!

– দাদা আমি আপনার এক ভক্ত ! আপনি ওয়েব দুনিয়ায় বাংলা খাবারের জনক বলে আমি মনে করি। পরিবার সহ খুব ভালো থাকবেন। অনেক শুভেচ্ছা ! আর আপনার পুচকু কে অনেক ভালোবাসা !
; ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা নিন। আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি মাত্র। আপনাদের ভালবাসাই কাম্য।
– আচ্ছা একটি কথা বলুন……… বাংলাদেশের সব যায়গাতেই কী পুকুরের মাছ রসুন দিয়ে রান্না করা হয় ?????? পশ্চিমবঙ্গে আমি দেখেছি ঘরোয়া মাছে রসুন এড়িয়ে চলা হয়। বিশেষ করে আমার মা তো মাছে রসুন দেওয়া আর কাঁচাকলায় আদা দেওয়া একই চোখে দেখেন। । হা হা হা !!!!:-)
; ha ha ha…
– আপনার জন্য এক ছোট্ট উপহার ! http://zeenews.india.com/bengali/lifestyle/summer-special-recipe-mango-chicken_23135.html
; ধন্যবাদ বন্ধু। দেখে লোভ লাগলো। দেখি একদিন রান্না করে ফেলবো। শুভেচ্ছা।

রাহাত হুসেইন, আমার আর এক ফেবু বন্ধু, খাদ্যরসিক, তিনি ম্যানিলা থাকেন। চিকেন ম্যাংগো রান্না করার পর একটা ছবি দিয়েছিলাম কয়েকদিন আগে, তিনি ইনবক্সে জানালেন, “bhai mango chicken r recipe r jonno wait kortesi…kacha mango jogar korsi…peke jachh”। হা হা হা। রাহাত ভাইয়ের এই কথা পড়ার পর রেসিপিটা লিখতে বসে গেলাম। তবে এত মজাদার এবং স্বাদের রান্না যে, আমি এই রান্নাটাকে বিশেষ রান্নায় স্থান দিয়েছি।

আজকের এই চিকেন উইথ ম্যাংগো বা ম্যাঙ্গো চিকেন আমার এই দুই বন্ধুর জন্যই! আপনারা আনন্দিত হলে আমিও খুশি হব, রান্না প্রিয় আপনাদের শুভেচ্ছা থাকলো। চলুন দেখে ফেলি! তবে আগেই বলে নেই বন্ধু সুমন বিশ্বাস যে রেসিপির লিঙ্ক দিয়েছিলেন সেটার মাল মশলা নিয়েছি কিন্তু রান্নাটা আমরা আমাদের মত করেছি যাতে আমাদের রান্না প্রিয় বন্ধুদের কাছে সহজ হয়ে ধরা দেয়।

কঠিন বা কম কথায় রেসিপি লিখে আমরা চলে যেতে চাই না! আমরা চেষ্টা করি, আমাদের রেসিপিটা একবার পড়েই যেন আপনাদের মনে ইচ্ছা জাগে রান্নাটা করে ফেলার এবং সেটা সহজ হলে আশা করি আপনারা তা করবেনই! হা হা হা।

আসলে আমি কাঁচা আম কিনে কিছুটা পাকিয়ে ফেলে রান্না করেছিলাম। তবে ব্যাপার না, রান্নার পরে আমি বুঝতে পারছি, কাছা/পাকাতে কি আসে যায়! হা হা হা… বোনলেস চিকেন হলে ভাল হয়, তবে এক্ষেত্রেও আমি কিছু হাড় নিয়েছিলাম! আমের কিউব করে নিন এবং চিকেন গুলো কিউব করে কেটে পরিস্কার করে এক চিমটি হলুদ এবং দুই চিমটি লবন দিয়ে মেখে রাখুন।

পরিমান ও উপকরনঃ
– মুরগীর মাংস, বোনলেস হলে ভাল (৩৫০ গ্রাম, অনুমান)
– কাঁচা আম, ৫০ গ্রাম (কাঁচা পাকা আম হলেই ভাল, হা হা হা)
– পেঁয়াজ কুঁচি, হাফ কাপ
– আদা বাটা, ১ টেবিল চামচ
– রসুন বাটা, ১ টেবিল চামচ
– হলুদ গুড়া, হাফ চা চামচ
– মরিচ গুড়া, ঝাল বুঝে, হাফ চা চামচ
– চিনি, এক চা চামচ
– নারিকেলের দুধ, এক কাপ
– পানি, এক কাপ বা কম বেশি
– লবন (শুরুতে কম দিয়েই রান্না করা ভাল)
– কয়েকটা কাঁচা মরিচ (ঝাল বুঝে)
– ধনিয়া পাতার কুঁচি
– তেল ১/৪ কাপ

(চাইলে কয়েকটা এলাচি ও কয়েক টুকরা দারুচিনি দেয়া যেতে পারে, আমি আগামীতে রান্না করলে দিয়ে দেখবো, তবে না দেয়াতেও স্বাদ কম হয়েছে তা বলা যাবে না)

প্রস্তুত প্রনালীঃ ছবি কথা বলে!
গোশত প্রিপারেশনঃ

ছবি ১, তেল গরম করে মুরগীর মাংস ভেঁজে নিন।


ছবি ২, বেশি নয় আবার কমো নয়।


ছবি ৩, এবার গোশত তুলে রাখুন।

মুল রান্নাঃ

ছবি ৪, উক্ত কড়াইতেই আরো সামান্য তেল দিন এবং সামান্য লবন যোগে পেঁয়াজ কুঁচির সাথে কয়েকটা কাঁচা মরিচ ভাঁজুন।


ছবি ৫, পেঁয়াজ গুলো সামান্য হলদে হয়ে গেলে আদা ও রসুন বাটা দিন।


ছবি ৬, আগুন মাধ্যম আঁচে থাকবে, ভাল করে মিশিয়ে ভাঁজুন। এই রকম ভাজাতে সাবধান থাকতে হবে, অনেক সময় চিটকা গায়ে পড়তে পারে।


ছবি ৭, ভাঁজা হয়ে গেলে এবার মরিচ ও হলুদের গুড়া দিন। সামান্য পানিও দিতে পারেন।


ছবি ৮, ঠিক কয়েক মিনিটেই এমনি সুন্দর রঙের ঝোল হয়ে যাবে।


ছবি ৯, এবার আমের কিউব গুলো দিন (কাঁচা আম হলে সিদ্ধ হতে সময় নিবে)


ছবি ১০, হাফ কাপ বা বেশি পানি দিন এবং ভাল করে মিশিয়ে নিন।


ছবি ১১, এবার ঢাকনা দিয়ে কম আঁচে আম সিদ্ধ বা নরম হতে দিন। কয়েকবার ঢাকনা উলটে খুন্তি দিয়ে আমগুলো নরম হয়ে গেলে গলিয়ে দিন।


ছবি ১২, ঠিক এমনি অবস্থায় এসে যাবে। এবার চিনি দিন এবং ভাল করে মিশিয়ে নিন।


ছবি ১৩, এমনি সুন্দর ঝোল হয়ে যাবে।


ছবি ১৪, এবার চিকেন দিয়ে দিন।


ছবি ১৫, ভাল করে মিশিয়ে নিন। আগুন মাঝারি।


ছবি ১৬, এবার নারিকেল দুধ দিয়ে দিন।


ছবি ১৭, ভাল করে নাড়িয়ে নিন এবং আগুন বাড়িয়ে দিন।


ছবি ১৮, এমন অবস্থায় আসতে মিনিট ৬/৭ লাগতে পারে।


ছবি ১৯, ঝোল কেমন রাখবেন তা আপনি নিজেই নির্ধারন করুন। রুটি দিয়ে খেতে চাইলে ঝোল একটু বেশি রাখাই ভাল। এবং এই সময়ে ফাইন্যাল লবন স্বাদ দেখুন, লাগলে দিন।


ছবি ২০, ধনিয়া কুঁচি দিন।


ছবি ২১, মিশিয়ে নিন এবং এই সময়ে আগুন বন্ধ করে দিন। ব্যস!


ছবি ২২, পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত।


ছবি ২৩, আর অপেক্ষা কি! যারা রুটি/পরোটা খেয়ে থাকেন, তাদের জন্য অসাধারণ আইটেম। আমার রান্না টেষ্টার বুলেট খেয়ে জানালো, ডিলিশিয়াস! আর আমার ব্যাটারী, তিনি খেয়ে চুপ হয়ে গেলেন! হা হা হা, রান্না ভাল হলে মুখে কোন কথা থাকে না!


ছবি ২৪, এই নিন আপনার জন্য! সাথে আছে ‘জিতু পরোটা’!

একদিন ট্রাই করেই দেখুন, বাজারে কাঁচা আম এখনো ভরপুর আর মশলাপাতি, সবই রান্নাঘরেই পেয়ে যাবেন বলে আমি মনে করি। সবাইকে শুভেচ্ছা।

(এই রেসিপিতে ইচ্ছা করেই বেশি ছবি ব্যবহার করলাম, যাতে রেসিপি বা রান্না বুঝতে আপনাদের আরো সহজ হয়)

রেসিপিঃ জিতু পরোটা

Advertisements

2 responses to “রেসিপিঃ চিকেন উইথ ম্যাংগো/ ম্যাঙ্গো চিকেন (গরমে আরাম)

  1. দারুন স্বাদ হবেই কারন নারিকেলের দুধ দেয়া হয়েছে।

    Like

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s