Gallery

আড্ডাঃ সকালের নাস্তা হোটেলে (উজ্জল হোটেল এন্ড রেষ্টুরেন্ট)


চলুন রেসিপি প্রিয় বন্ধুরা, আপনাদের আজ হোটেলে সকালের নাস্তার ছবি দেখাই। আগেই বলে রাখি পরিবার পরিজন নিয়ে আমি বাইরে (বেড়াতে বা ঘুরতে বা কাজে) বের হলে চেষ্টা করি, আমার ব্যাটারী এবং বুলেটকে হোটেলের নানা খাবার খাওয়াতে, এটা করে থাকি যাতে তারও অভিজ্ঞতা নিয়ে ফেলে! যখন পকেটের বাজেট ভাল থাকে তখন ভাল হোটেলে খেতে বলি আর বাজেট কম থাকলে সাধারণ মানের হোটেলেই বসতে বলি।

গত শুক্রবার সকালে ব্যালটের টিকা দিয়ে বের হয়ে ব্যাটারীকে জানালাম, চল আজ হোটেলে নাস্তা খাই। বুলেট কিছুটা ঘ্যানর ঘ্যানর করলেও বেশি অমত করে নাই। উজ্জল হোটেল এন্ড রেষ্টুরেন্টে একটা সাধারণ মধ্যবিত্তদের জন্য খাবার হোটেল, সকালের নাস্তা থেকে যাত্রা শুরু করে রাতের খাবারে হোটেলটা বন্ধ হয়। এই হোটেলের আমাদের সবার আরো কয়েকবার একসাথে খাবার অভিজ্ঞতা আছে। এই মগবাজার এলাকাতে এটা একটা পুরাতন হোটেল, আমি অবশ্য এই হোটেলের মালিক বা পরিচালনা কারা করে কখনো জিজ্ঞেস করি নাই। (এই হোটেলে ব্যচেলর লাইফে আমি প্রচুর সময়ে খেয়েছি এবং আড্ডাও দিয়েছি।) যাই হোক, আমরা চারজন মগবাজারের ওয়ারলেস মোড়ের উজ্জল হোটেল এন্ড রেষ্টুরেন্টে সকালের নাস্তা খেতে প্রবেশ করলাম!


বোয়ারা আমাদের ওর্ডার নিয়ে গেল। পানি সবার আগে! তবে এখানে রেসিপি পাঠক/পাঠিকাদের জন্য একটা ধাঁধাঁ! আমরা চারজন হোটেলে প্রবেশ করে টেবিলে বসলাম কিন্তু আমাদের জন্য পানির তিনটে গ্লাস কেন?


এই হোটেলের নানা রুটি বরাবরের মতই ভাল।


চিকেন সুপ। আমার মনে হয় গত ৩০ বছরেও বাবুর্চি পালটায় নাই! এখনো আমার ব্যচেলর লাইফের কথা মনে পড়ে, সেই সময়েও চিকেন সুপ এখানে এমন ছিল, এমন রঙ!


বিফ ভুনা। বুলেট ফেবারেট! (এর আগে সবাই একই পদের খাবার নিয়েছি বলে আজকের অর্ডারে তিন প্লেটে তিনটে আইটেম, যাতে সব আইটেমের স্বাদ দেখা যায়! তবে আগেই বলি বিল দিতে গিয়ে আমি টাস্কিত হয়েছিলাম, এই সামান্য কয়েক টুকরা বিফ ভুনার দাম ১০০টাকা! এটা নিশ্চয় গলাকাটা কারবার!)


সাধারন ডাল সবজি ভাজি মিক্স! এটা আমার ফেবারেট। সকালের নাস্তায় ডাল সবজি ভাজি না থাকলে মজা কি! হোটেলের নাস্তায় সব চেয়ে সস্তা খাবার!


সালাত মিক্সটা জাব্বার বানিয়েছিল! (এটা ফ্রী!)


খাবার শুরু!


তিন গ্লাসের রহস্যটা এখানে উন্মুক্ত! হা হা হা। শিশু কোলে একমাত্র মায়েরাই সব কাজ করতে পারেন! (আর শিশু কোলে নিয়ে ভাষন সহ যাবতীয় লেখা পড়া, ডকুমেন্ট সাইন, টিভিতে সাক্ষাৎ এই সব করতে পারেন আমাদের মাননীয় বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কিছু দিন আগে হাম রুবেলা টিকা দান উদ্ভোধনে তিনি নিজেই এই কথা সারা জাতিকে শুনিয়েছেন। আশা করি আপনারা অবগত আছেন।) ওহ, বলতে ভুলে যাচ্ছি, শুক্রবার সকালে আমাদের মত আরো অনেক পরিবার এভাবে এই হোটেলে নাস্তা খেতে এসেছিল, পিছনের সিটে এমনি একটা পরিবার দেখলাম।


হোটেলে খাবেন আর খাবারের পরে চা চলবে না? বলেন কি?


হোটেলে চা পান করতে গেলে আমি পিরিচে চা ঢেলে পান করি এবং সেটা দেখে আমার ছেলে বুলেট বলে, এই জন্য তোমার সাথে হোটেলে খেতে আসতে ইচ্ছা করে না! আমি ওকে কিছু বলি না তেমন, শুধু হাসি, আমার বয়সের হয়ে নে আগে! Ajmain Udraji


বিল দিয়ে দাঁত খিলাল করে বের হয়ে পড়ুন!

রেসিপি পাঠক পাঠিকাদের আশা করি এভাবে দেশ বিদেশে নানা হোটেলে সকাল, দুপুর, বিকাল, সন্ধ্যা, রাতের খাবারের এভাবে নানান অভিজ্ঞতা রয়েছে। আসলে পেটে ক্ষুধা থাকলে হোটেলে কি আসে যায়!

সবাইকে শুভেচ্ছা। অনুরোধ করবো, নিজের প্রিয়জনদের নিয়ে এভাবে বের হয়ে পড়ুন মাঝে মাঝে, আড্ডা ও সময় কাটবে, পাশাপাশি একে অপরের প্রতি মায়া মমতা ভালবাসাও বাড়বে।

ফেবু স্ট্যাটাস এখানে!

Advertisements

11 responses to “আড্ডাঃ সকালের নাস্তা হোটেলে (উজ্জল হোটেল এন্ড রেষ্টুরেন্ট)

  1. Balot k khub cute lagse….valoo thakun…..Raddowan

    Like

  2. দারুন!!!

    সকালে রেস্টুরেন্ট এর নাস্তা খেতে ভালোই লাগে

    রেস্টুরেন্ট এর মুরগির স্যুপ আমার সবসময়ের প্রিয় নাস্তার একটা!!

    শুভেচ্ছা ও ভালোলাগা

    Like

    • ধন্যবাদ ভাতিজা।
      দেরীতে উত্তর দেয়ার জন্য দুঃখিত। নানান কাজে এখন সময় বের করা কষ্টকর হয়ে পড়ছে।

      আমি নিজে হোটেলে অনেক অনেক খাবার খেয়েছি। তবে এখন আর খাই না, তাই খেতে মন চাইলে সবার জন্য চিন্তা করি। ওরাও আমার এমন কান্ডে মজা পায়।

      শুভেচ্ছা।

      Like

  3. ভাইয়া, এই চিকেন সুপের রেসিপিটা কি পাওয়া যেতে পারে? আমি বেশ কয়েকবার চেষ্টা করেছি, কিন্তু প্রতিবার কিছু না কিছু কমই মনে হয়… প্লিজ…

    Liked by 1 person

  4. এই মুরগির স্যুপটা আমার বড় ভাইয়ের অনেক ফেভারিট, এখন অস্ট্রেলিয়া থাকে, তাই মন চাইলেও খেতে পারে না,, আমার কাছে বেশ কয়েকবার রেসিপি চাইছে, আনফরচুনেটলি দিতে পারি নাই, এই স্যুপটা নিয়ে একটা রেসিপি পোস্টের আশায় রইলাম।

    (হাতে বেশ কিছু সময় আছে, আমি অবসর টাইমে ফুড নিয়ে ঘাটাঘাটি করি, তারই অংশ হিসেবে আপনার সব রেসিপি দেখছি, আপনার তিল তিল করে গড়ে তোলা ব্লগটা আজ এতটা পরিণত, ভাবতেই ভালো লাগছে)

    শুভেচ্ছা

    Liked by 1 person

  5. ai murgir soup ta amar onek pochonder,but ami Korea te thaki…tai khete chaileo hotel er taste er moton tasty soup ta khete parina..r basar ta hotel er tar moton taste o hoyna..kindly recipe ta deya jabe?

    Liked by 1 person

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s