গ্যালারি

রেসিপিঃ শীতের সবজি (মিক্স, কম মশলা ও খাদ্যে ভেজাল)


গত কয়েকদিন আগে এক বোন ফেসবুকের মেসেজে আমাকে জিজ্ঞেস করলেন, ভাইয়া আপনার অনেক রেসিপিতে এখন আর টমেটো দেখা যায় না, আপনি কি টমেটো খান না। বোনটার উত্তর কি দেবো ভাবছিলাম। হ্যাঁ, আমি আসলে এখন অনেক কিছুর মত বাজার থেকে টমেটো আর কিনিই না! টমেটো যে খাই না তা নয়, আমি টেমেটো কিনিনা শুধু মাত্র ভেজালের কারনে। জেনে শুনে আর কত ভেজাল খাব। ঢাকার বাজারে পাওয়া প্রায় সকল টেমেটোই এখন কেমিক্যাল স্প্রে করা, টমেটো দেখলেই চেনা যায়। অথচ বিক্রি হচ্ছেই। টেমেটোর কথা কি বলব, এখন শীত কাল, শীতের প্রায় সব্জিই বাজারে আছে অথচ খবর নিয়ে জেনেছি, তেমন কিছুই আমাদের জন্য নিরাপদ নয়। প্রায় সব সব্জিই ভেজালে ভরা। আমি ভেজাল নিয়ে লিখেই যাচ্ছি। এটা কেমন কথা, দেশে সরকার থাকতে, সরকারের নানান বাহিনী থাকতে এখনো দেশে ভেজাল খাবার বিক্রি হয়। মানুষ বা প্রানী জগতের কোন খাবারেই ভেজাল চলতে পারে না, হতে পারে না। মাঝে মাঝে খাদ্যে ভেজাল দেখে মনে হয়, এই সরকারকে অভিশাপ দেই। কারন তারা চাইলে কি না হয়/হচ্ছে। কেন তারা ভেজাল নিয়ে ভাববে না, কেন তারা সাধারণ মানুষের জীবন নিয়ে ভাববে না। আমি মনে করি, সরকার চাইলে খাদ্যে ভেজাল দূর করা মাত্র কয়েক দিনের ব্যাপার।

দুই দিনের দুনিয়া। সবাইকেই একদিন মরতে হবে। কথা হচ্ছে এই মৃত্যু কেন স্বাভাবিক এবং সুন্দর ভাবে হবে না। সর্বোচ সময় কেন মানুষ বাঁচবে না, এটা তো একটা স্বাভাবিক অধিকার। ভেজাল খেয়ে কেন অকালে মানুষ মারা যাবে। আমরা সাধারণ মানুষ কেন ভেজালকারীদের কাছে পরাজিত হব। এই দেশে কতজন মানুষ ভেজালকারী? এই সামান্য কয়েকজন মানুষকে কি সরকার নিয়ন্ত্রন করবে না। গোটাজাতিকে যারা বিপদের মুখে ঠেলে দিচ্ছে, পরবর্তি জেনারেশনকে যারা পঙ্গু করে দিচ্ছে তাদের কি কোন বিচার হবে না। তারা কি আমাদের বুকের উপর দিয়ে গাড়ী চালিয়েই যাবে!

আমি যেখানে পারছি, আমার শক্তি দিয়ে খাদ্যে ভেজালের বিরুদ্ধে বলেই যাচ্ছি এবং ভেজাল বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত বলেই যাব। আমার পছন্দের সরকার সেই হবে, যেদিন দেখবো বাংলাদেশের খাদ্যে আর কোন ভেজাল নাই এবং সে সরকার এটা করে দেখাবে। মানুষ নির্ভয়ে ভেজাল মুক্ত খাবার বাজারে পাবে। ফেবুতে আমি বলেই যাচ্ছি, আশা করি আমার প্রিয় রেসিপি পাঠক/পাঠিকা ভাই বোন বন্ধু, আপনারা আমার সাথে থাকবেন। অন্তত ভেজালকারী এবং ভেজাল রক্ষা কারী সরকারকেও ঘৃনা করুন, যতক্ষন না তারা আমাদের জন্য এই সাধারণ কাজটা করে দিবে।  ফেবুতে আমার স্ট্যাটাস গুলোতে আপনাদের সমর্থন চাই।

[] ‘An apple a day’ বারাক ওবামারা যখন এই ধরনের প্রোগ্রাম বা চিন্তা করেন তখন আমাদের প্রধানমন্ত্রী কি খাদ্যে ভেজাল রোধের কথাও চিন্তা করবেন না! সাধারণ মানুষের জন্য তিনি কি কতিপয় ভেজালকারীদের হুমকি দিতে পারেন না, যেমনটা তিনি বিরোধীদলকে দিয়ে থাকেন! তিনি কি কঠোর ভাষায় বলতে পারেন না, কাল সকাল থেকে বাজারে কোন খাদ্যে ভেজাল মেনে নেয়া হবে না! ভেজালকারী পেলেই ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দেয়া হবে! প্লিজ, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, একবার বলেই দেখুন না! নুতবা ভেজাল খেয়ে যারা কষ্ট পেয়ে মারা যাচ্ছে, যেসব পরিবার নিঃস্ব হচ্ছে, তাদের জন্য আপনিও একাল/পরকাল দুইকালেই দায়ী থাকবেন।

[] মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আপা আপনাকে অভিনন্দন। এই দেশের কিছু হলে আপনাকে দিয়েই হবে, আপনিই পারবেন! যাই হোক, আপনি ২০৪১ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকুন, সেই দোয়া করি। আমজনতা হিসাবে আপনার কাছে দুটো দাবী রাখতে চাই। দাবী গুলো পুরন করে দিলে সারা জীবন আমি আপনার পাশে গনভবনে থেকে আপনার ফুল বাগানের মালী হয়ে যাব! দাবী গুলোর ব্যাখায় যাব না, সংক্ষেপে লিখে দিলাম! সাক্ষী রাখলাম Saima wazed Putul – সায়মা ওয়াজেদ পুতুল ও Sajeeb Wazed । ১) দেশের খাদ্যের ভেজাল দূর করে দিন, আমাদের খাদ্যে ভেজালের হাত থেকে চিরতরে মুক্ত করুন। খাদ্যে ভেজালকারীদের আপনি যা ইচ্ছা করুন, কিছু কমু না।  ২) ইন্ডিয়ান বাংলা হিন্দি সিরিয়ালের টিভি চ্যানেল গুলো চিরতরে বন্ধ করে দিন, এতে দেশ ও জাতি চরম রক্ষা পাবে। আমাদের মা, চাচী, বোন, স্ত্রী, বেয়াইন, বৌমা ও মেয়েরা দেশের কাজে সময় দিতে পারবে, বিদ্যুৎ বাঁচবে, দেশি চ্যানেল টিভি গুলোতে আপনার উন্নয়ন বেশি বেশি দেখতে পারবে।(আগামী দুই মাসের মধ্যে না পারলে অনুগ্রহ করে বিদায় নিন।)

[]২০১৪ইং, নূতন বছরের শুভেচ্ছা, আমাদের সবার জীবন আনন্দে ভরে উঠুক। এই বছরে সরকার আমাদের জন্য ভেজালমুক্ত খাদ্য পাবার ব্যবস্থা করবেন বলে আশা করি। খাদ্যে ভেজালকারীর ফাঁসি চাই। খাদ্যে ভেজালের জন্য কত পরিবার নিঃস্ব হয়ে যাচ্ছে, কত মানুষ অকালে প্রান হারাচ্ছে, যা মেনে নেবার মত নয়, মানা যায় না।

এভাবে আমি প্রায়ই স্ট্যাটাস দিয়েই চলছি। আশা করছি একদিন সরকারের বিবেকবোধ জেগেই উঠবে। এটা যে কত বড় অন্যায় হচ্ছে, সারা দেশবাসীদের সাথে যে কত বড় অন্যায় করছে সরকার, সেটা আশা করি সরকার তাড়াতাড়ি বুঝে যাবে। (যারা মনে করেন এই ভেজাল সাধারণ মানুষই বন্ধ করতে পারবেন, আমি তাদের সাথে একমত নই, কারন এই ভেজাল এখন এমন এক পর্যায়ে গেছে যে, এই ভেজাল রোধে এখন সরকারে কঠোর ভুমিকাতে নামতেই হবে। সাধারণ মানুষের এখন শুধু সরকারের উপর চাপই দেয়া দরকার। র‍্যাব বা এদের মত কোন শক্তিশালী ফোর্স গঠন করে সরকারকেই এগিয়ে আসতে হবে।)

দেখুন কি আফসোসের কথা! শীতের সব্জি আমরা ভেজালের কারনে কিনতে পারছি না, অথচ আমরা এই সব্জি গুলো চোখের সামনে দেখছি। যারা কিনছে/খাচ্ছে তারা ক্যান্সার, লিভার, কিডনী, আলসার, পাইলস সহ নানান রোগের ঝুকিতে সরাসরি চলে যাচ্ছে। তবুও! বাজার থেকে কেনা সব্জি গুলো অনেকক্ষণ ধরে পানিতে ভিজিয়ে রাখুন, ভাল করে ধুয়ে নিন এবং রান্নায় সময় বেশি করে কষিয়ে রান্না করুন। এবং সর্বশেষ উপরওয়ালার নামে মুখে পুরুন! সরকার যখন কিছু করে না তখন উপরওয়ালাই সহায়!

চলুন আজ এমনি একটা মিক্স ভেজিটেবল দেখে ফেলি। খুব সাধারন রান্না, সহজ এবং খুব মশলায় রান্না।

প্রয়োজনীয় পরিমান ও উপকরনঃ
– ফুল কপি, ছোট একটা
– নূতন আলু, ২০০ গ্রাম
– সিম, ২০০ গ্রাম
– কয়েক টুকরা মাছ (আমি তেলাপিয়ার মাথা দিয়েছি, যা হাতের কাছে পেয়েছি)
– একটা মাঝারি পেঁয়াজ কুঁচি
– এক চা চামচ রসুন বাটা
– এক চা চামচ আদা বাটা
– কয়েকটা কাঁচা মরিচ
– হাফ চা চামচ হলুদ
– হাফ চামচের কম মরিচ গুড়া
– লবন (হাফ চা চামচ, লাগলে দেয়া যেতে পারে পরে)
– সয়াবিন তেল, ৭/৮ চা চামচ ও পরিমান মত পানি

অফশন্যালঃ
– ধনিয়া পাতার কুঁচি (আমার ছিল না বলে দিতে পারি নাই, দিলে আরো ভাল হত)

প্রনালীঃ (ছবি কথা বলে)

ছবি ১


ছবি ২


ছবি ৩


ছবি ৪


ছবি ৫


ছবি ৬


ছবি ৭


ছবি ৮


ছবি ৯


ছবি ১০

দারুন মজাদার হয়েছিল। আশা করি আপনারা নিজেরাও এমনি নানা পদের সব্জি দিয়ে রান্না করে দেখবেন। বিশেষ করে গরম ভাত কিংবা আটার রুটি বা ময়দার পরোটার সাথে এই সব্জির জুড়ি নেই।

সবাইকে শুভেচ্ছা। ভাল থাকুন, আনন্দে আপনাদের সময় কাটুক।

Advertisements

4 responses to “রেসিপিঃ শীতের সবজি (মিক্স, কম মশলা ও খাদ্যে ভেজাল)

  1. শীতে এ ধরনের সবজি আমি নিত্য করি। দুঃখের কথা কুম্ভকর্ণের অতি প্রিয় সবজি ফুলকপি ও ভেন্ডি নিষেধের আওতায় পড়েছে, 😦

    তেল বোধহয় ৭/৮ চা চামচ হবে। টেবিল চামচ হলে তো অনেক বেশী হওয়ার কথা।

    যতদুর কম তেল মশলায় রান্না করা সম্ভব, তাই করা উচিত।

    Like

    • ধন্যবাদ আপা, কুম্ভকর্ন ভাই ভাল আছেন জেনে ভাল লাগল। এবার একটু বেছেই চলুক না! এই বেছে চলাতে যদি মঙ্গল থাকে তবে তাই হউক। দোয়া করি। আপনি নিজেও এখন বেছে বেছে খান, আপনিও ভাল থাকুন।

      জ্বি আপা, ঠিক করে দিচ্ছি/দিলাম। ধন্যবাদ আপনাকে ভুল ধরার জন্য। শুভেচ্ছা।

      Like

  2. সাহাদাত ভাই, এমন রান্না আরো দিন।

    Like

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s