Gallery

রেসিপিঃ জলপাই আঁচার (ফেইসবুকের প্রিয় বন্ধুদের জন্য)


ফেইসবুকে বুকে গতকাল একটা স্ট্যাটাস দিয়েছিলাম, “ফেইসবুকে যারা অন্যের স্ট্যাটাসে কমেন্ট করেন তারা আসলেই দিলদার মানুষ! মতাদর্শ ভিন্ন হতে পারে বটে তবে এই যে সামান্য সময়টুকু অন্যের জন্য ব্যয় করেন তাতে আসলে তিনি বার বার নিজকেই প্রমান করেন।” আমার এই স্ট্যাটাসে এখন পর্যন্ত ৯০ লাইক ও ৪৩টি কমেন্ট করছেন আমার ফেইসবুকের বন্ধুরা। তার মধ্য আমাদের একজন পুরানো বন্ধু ‘যাদব সূত্রধর’ তিনি কমেন্টে ভিন্নমত পোষন করেছেন কিন্তু আবার আমার কাছে একটা আঁচারের রেসিপি চেয়েছেন! হা হা হা… এদিকে আমি আঁচার বানাছিলাম, গত কয়েকদিন থেকেই! আজকের এই সাধারন ও সহজ আঁচার রেসিপি আমার এই ফেইসবুকের বন্ধুদের জন্যই। সবাই হাতের কাছে থাকলে, আঁচার দিয়ে আপ্যায়ন করতাম। চলুন এখানে সেই প্রিয় বন্ধুদের কমেন্ট দেখে নেই এবং পরেরই থাকছে রেসিপি!

বন্ধুরা আপনারা সবাই ভাল থাকুন। এমন আঁচার আপনারা নিশ্চয় আপনাদের বাসায় মা বোনদের করতে দেখেছেন কিন্তু হয়ত প্রনালীটা দেখেন নাই, খুব সহজ ও সাধারণ। চলুন দেখে ফেলি।

প্রনালী ও উপকরনঃ  

কত টুকু/ কতটা আঁচার বানাবেন সেই পরিমানে জলপাই নিন এবং বোটা ফেলে ভাল করে ধুয়ে জলপাইয়ের গায়ে দাগ করে দিন।


জলপাই গুলো গরম পানিতে সিদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে নিন।


এবার প্রয়োজন মত (এটা আসলে আপনিও বুঝতে পারবেন, একটা ঘ্রান বের হবে সেই ঘ্রানেই আপনিও বলে দিতে পারবেন, কোনটা কেমন লাগবে) সামান্য হলুদ, সামান্য মরিচ গুড়া, সামান্য সরিষা বাটা (না থাকলে নাই), লবন (একটু বেশী) এবং সরিষার তেল (মাখানোর জন্য দুই তিন চামচ) দিয়ে ভাল করে মেখে নিন।


এবার জলপাই গুলো রোদে শুকিয়ে নিন। টানা রোদে শুঁকাতে পারলে ভাল। আমি আমাদের বাড়ীওয়ালার গাড়ীর গ্যারেজের ছাদে এভাবে শুঁকিয়ে নিয়েছিলাম। শুঁকাতে দিয়ে অফিসে চলে আসি এবং সন্ধ্যায় আমার ছেলে বুলেটকে বলি, বাসায় নিয়ে রেখে দিতে। আমি রাতে বাসায় ফিরে গুনে দেখি নয়টা মিসিং! হা হা হা।। আমার ছেলে দুটো এবং আশেপাশের সবাই মিলে নয়টা সাবাড় করে দিয়েছে!


রোদে এই রকম একটা অবস্থায় এসে যাবে।


এবার মশলা দেয়া জলপাই গুলোকে আপনার প্রয়োজনীয় জারে ভরে নিন।


এবার খাঁটি সরিষার তেল ভাল করে ফুটিয়ে ঠান্ডা করে নিন, যতটুকু জারে লাগে।


এবার জারে সরিষার তেল দিয়ে দিন।


ঢাকনা লাগিয়ে জারে ভরে এবং ঢাকনা খুলে আরো রোদে দিতে পারেন। যত রোদে দেবেন আঁচার তত বেশি মজাদার এবং সুস্বাদু হয়ে উঠবে। এছাড়া রোদের কারনে আঁচার দীর্ঘস্থায়ীও হবে, সহজে নষ্ট হবে না।


কি বলেন রেসিপি প্রিয় বন্ধুরা, এমন আঁচারের শিশি কি কখনো দেখেছেন! মনে পড়ে, ছোটবেলায় বারান্দায় এমন আঁচার দেখে কত না লোভ হয়েছিল! হা হা হা…

এটা জলপাইয়ের সবচেয়ে সহজ আঁচার বলে আমি মনে করি। আপনিও চাইলেই বানিয়ে নিতে পারেন। এখন জলপাইয়ের সিজন চলছে, দামও কম, এখুনি করে নিন!

সবাইকে শুভেচ্ছা। যাবার আগে ফেইসবুকের সেই কমেন্টের মত করে আবারো বলি, “ফেইসবুকের চেয়ে প্যারসোন্যাল ব্লগে এসে যারা পোষ্টে কমেন্ট করেন শুধুই মানব নন, মহামানব।”

27 responses to “রেসিপিঃ জলপাই আঁচার (ফেইসবুকের প্রিয় বন্ধুদের জন্য)

  1. Onek dhonyobad Sahadat vai. kritoggota janacchi. aj jolpai nebo. acar banabo.

    Like

  2. vaia, tel a pachforon ba onno kono moshla lagbe na??

    Like

  3. vaia, tel a pachforon ba onno kono moshla lagbe na??

    Like

    • ধন্যবাদ বোন। না আর কিছুই লাগবে না, তবে বোতলে ভরে একটু বেশি সময় রোদে রাখবেন। নরম হয়ে স্বাদ বেড়ে যাবে।

      আপনি নিশ্চয় লক্ষ করবেন যে, আমি সাধারণত কম মশলা দিয়ে সব কিছু করতে চেষ্টা করি। এটাও তেমন। স্বাদ বেশ, আমি আজ একটা খেয়ে দেখলাম, বেশ ভাল লেগেছে।

      আমাদের অন্য আঁচার গুলো দেখতে পারেন, সেখানে পাঁচ ফোড়নের ব্যবহার আছে।

      ধন্যবাদ।

      Like

  4. সহজ পদ্ধতি । আমার কপাল খারাপ , জলপাই খেলে বিবিধ সমস্যায় পরে যাই । তাই জলপাই থেকে কয়েক হাত দূরে থাকি । ভবিষ্যতে যদি কেউ আমার কাছে চায় তাহলে এভাবেই করে দেয়ার চেষ্টা করবো ।

    Like

  5. last year I tried to make some olive pickle but it came out like yakkk….
    That recipe from my relative was complicated. May be this year I’ll give it one more try.

    Like

  6. vaIA ebar jolpai er mishti achar ta den..

    Like

  7. আপনার কথা গুলো খূব মজার। রেসিপি গুলো নিশ্চয় মজার হবে। আপনার বলেট আর ব্যালট কেমন আচেন?

    Like

    • ধন্যবাদ জসিম ভাই। আপনি কেমন আছেন? গল্পের ছলে আসলে রেসিপি বলে দেয়াই আমার উদ্দেশ্য। এবং ছবি দেখে যাতে সবাই বিশেষ করে ছেলেরা যেন রান্না করতে পারেন, এটাই আমার চেষ্টা। এছাড়া আপনারা আমাদের পছন্দ করেন এই জন্যই আমরা টিকে আছি।

      বুলেট এবং ব্যালট ভাল আছে। আমরাও ভাল আছি।

      শুভেচ্ছা। আশা করছি মাঝে মাঝে আমাদের দেখে যাবেন।

      Like

  8. jolpai jare obrar aghe rhode koi din rakte hobe….

    Liked by 1 person

  9. বাহ্! আচারের রেসিপিও পোয়ে গেলাম! অনেক ধন্যবাদ উদরাজী ভাই!

    Liked by 1 person

  10. wow khov shoag thank u aj kai banabo

    Liked by 1 person

  11. জনাব ,, মসলা কি কাচা,,না‌কি বাঝা,,, আর মসলা বল‌তে কি কি বু‌ঝি‌য়ে‌ছেন?জানা‌লে উপকৃত হতাম

    Liked by 1 person

  12. apu vinegar dewa lagbe na ?

    Liked by 1 person

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s