Gallery

রেসিপিঃ নারিকেলী গোস


মেহমান বা অতিথি আসলে আমরা খুশি হই। আমরা চাই মেহমান আমাদের রান্না করা খাবার খেয়ে আনন্দ পান এবং আমাদের ভাল বলেন! হা হা হা… আজকাল আমাদের প্রায় আত্বীয় স্বজন আমাদের/আমার রান্নার কথা জানেন, দেশে বা বিদেশে। যে সকল আত্বীয় স্বজন অনলাইনে থাকেন তারা তো জানেনই, সাথে তাদের গল্পেও এখন প্রায় সবাই জানেন। আমার ব্যাটারীকেও এই বিষয়ের মাইক বলা যেতে পারে! প্রথম প্রথম আমি লজ্জা পেলেও এখন বুক ফুলে গর্ব করে বলি, আমি রান্না করতে পারি! আমি নেটে রেসিপি দেই এবং আমার এই রেসিপি দেখে আমার বাংলাদেশী প্রবাসী, ব্যচেলর ভাইবোনরা রান্না শিখেন এবং আমাকে ভালবাসেন। রান্না মানেই আমার কাছে ভালবাসা! আমি এই ভালবাসার প্রমান দিয়েই যাব! হা হা হা…

আসলে মেহমান বা অতিথি এলে আমরাও ভাল খাবারের চান্স নেই! আমাদের এক্সপেরিমেন্ট চলে নিরবে। অতিথি তৃপ্তির সাথে খেয়ে যখন হাসেন তখন আমাদের আনন্দে বুক ভরে যায়। আমি নুতন করে রেসিপি লিখতে সাহস পাই।

চলুন, কথা না বলে আজকের এই রেসিপি দেখে ফেলি। নারিকেলী গোসত বা গোস! নারিকেল দুধের জন্য এই নামাকরন। গরুর গোসতের অনেক রান্না আপনাদের দেখিয়েছি, এবার কিছু ভিন্ন ভিন্ন রান্নার চেষ্টা করতেই হবে।

তবে রেসিপি পাঠক পাঠিকার কাছে অনুরোধ থাকবে, যাদের বয়স ৪০ এর উপরে তারা আপনারা গরুর গোসত কম খাবেন। যত স্বাদের রান্নাই হউক না কেন, কয়েক টুকরার বেশী খাবেন না। নারী পুরুষ উভয়ের জন্য এটা প্রযোজ্য।

উপকরন ও পরিমানঃ
– গরুর গোস্তঃ ২ কেজি (আমরা দুই কেজি রান্না করেছিলাম বলে দুই কেজির পরিমান দিয়ে দিলাম, আপনি কম বা বেশী রান্না করলে সেই মত পরিমান ঠিক করে নেবেন)
– আদা বাটাঃ ৩ টেবিল চামচ
– রসুন বাটাঃ ৩ টেবিল চামচ
– জিরা গুড়াঃ ২ চা চামচ
– হলুদ গুড়াঃ ১ টেবিল চামচ
– গোল মরিচ গুড়াঃ ১ চা চামচ
– জয়ত্রি বাটাঃ ১ চা চামচ
– গরম মশলাঃ দারুচিনি ৪/৫ পিস, এলাচি ৭/৮ টা, তেজপাতা ৩/৪ টা
– কাঁচা মরিচঃ ৫/৬ টা
– নারিকেল দুধঃ ঘন দুইকাপ
– টক দইঃ ১/৪ কাপ
– লবনঃ পরিমান মত
– চিনিঃ ১ চা চামচ
– পানিঃ পরিমান মত
– তেলঃ পরিমান মত (হাফ কাপের কম, তেল বেশী না দেয়াই ভাল)

– বেরেস্তাঃ হাফ কাপ (শেষে ব্যবহারের জন্য)

প্রনালীঃ 

নারিকেলী গোসত রান্না করতে আমি মনে করি গরুর ক্যারোলীর মাংসই কেনা দরকার। আপনি আপনার পছন্দ মত টুকরা করে কেটে ভাল করে ধুয়ে নিন এবং একটা রান্নার হাড়িতে প্রথমে তেল নিন, যে হাড়িতে রান্না করবেন। তার পর গোসত নিয়ে নিন।


প্রথমে টক দই দিন।


তার পর একে একে উপরে উল্লেখিত সব মশলাপাতি দিয়ে দিন এবং এর পর দিন নারিকেলের দুধ। পরিমান মত লবন দিতে ভুলবেন না, এই পর্যায়ে সব সময়েই কম লবন দেয়া উচিত। কারনে রান্নার শেষে আমরা যখন শেষ স্বাদ দেখি তখন লবনের পরিমান দেখা যায়। কাজেই প্রথমেই লবন ঠিক হবে ভেবে লবন দেয়া উচিত নয়। মনে রাখবেন লবন বেশী হলে স্বাদ শেষ হয়ে যায়!


এবার ভাল করে মিশিয়ে নিন এবং মাধ্যম আঁচে চুলায় বসিয়ে দিন।


ঢাকনা দিতে ভুলবেন না। মাঝে মাঝে ঢাকনা উলটে নাড়িয়ে দিতে হবে।


ঝোল কমে এই পর্যায়ে আসতে মিনিট ৩০ লাগতে পারে। এবার গোসত নরম হল কি না দেখুন, মশলা মাংসে মিশেছে কি না তা দেখুন। না হলে আরো পানি দিন।


আমাদের গোসত নরম এবং আমার মনের মত হয় নাই বলে আমি আবারো পানি দিয়েছি এবং আরো মিনিট ২০ ফুটিয়েছি। কিছুটা ঝোল রাখবো বলে আমি পানি একটু বেশী দিয়েছিলাম।


এবার গোসত আমার মনের মত হয়েছে বলে আঁচ কমিয়ে দিলাম। ফাইন্যাল লবন চেক করলাম। এবার বেরেস্তা ছিটিয়ে দিলাম।


ভাল করে মিশিয়ে আরো কিছু ক্ষন জ্বালে রাখলাম। আরো কিছু ঝোল কমিয়ে নিলাম।


ব্যস, পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত।

খেয়ে তারিফ না করলে রান্না করবেন কেন? হা হা হা… ভালবাসার সাথে কনফিডেন্সও থাকা দরকার।

সবাইকে শুভেচ্ছা।

Advertisements

9 responses to “রেসিপিঃ নারিকেলী গোস

  1. Why use Suger , is it for only increase the test or for boild quickly the meat??

    Like

  2. দারুন! বেরেস্তা ছাড়া যে এটাতে পেঁয়াজ ব্যাবহার করেন নি সেটা নিচে বড় করে উল্লেখ করুন। পেঁয়াজে যে ভাবে আগুন লেগেছে তাতে করে এই রেসিপিটি সবাইকে কিছুটা হলেও স্বস্তি দিবে বলে আমি মনে করি।

    Like

  3. ভাষা নেই কমেন্ট করার। জটিল হইছে উপস্থাপনটা না জানি খেতে কত মজা হবে।

    Like

  4. অসাধারণ!!!!!!!!!

    আমার খেতে ইচ্ছা করছে!!!!

    দারুণ হয়েছে!!!!!! কিপ ইট আপ 🙂

    শুভেচ্ছা

    Like

  5. vaia atto valo valo ranna apne koren ke vabe ? osadharon dakhte. kathe je ke moja hobe.amar khub issa korse khate.ammu ke bolbo ranna kore dete aj e.ata amar cai cai cai.

    Like

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s