Gallery

রেসিপিঃ বাইল্যা মাছ রান্না (সাহস করলেই হয়)


কোন পথে মধ্যবিত্ত পরিবার গুলো এই দেশে এগিয়ে চলছে, তা বলে বুঝানো যাবে না। দ্রব্য মূল্যের সাথে পাল্লা দিয়ে সৎ পরিবার গুলোর কি হচ্ছে তা বলা বাহুল্য। খুব সহজে বলা যায়, বাংলাদেশে বেশীর ভাগ মানুষই এখন অসৎ হয়ে পড়ছে। জীবনের কোন অংশে রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা না থাকার কারনে অনেকের ইচ্ছা না থাকলেও প্রতারনার জাল বসিয়ে টাকা ধরার চেষ্টায় সেটা পরে নেশায় পরিনত এবং এর থেকে আর মুক্তও হতে পারছেন না। এদিকে উপরিমহলের টাকা দেখে এবং টাকাই নিরাপত্তা দিচ্ছে/দেবে ভেবে যারা ভাল থাকতে চান, তারাও টাকার জন্য প্রতারক হয়ে উঠছে!

মানুষ দেখা আমার স্বভাব। আমি মানুষের মুখ দেখি ইচ্ছা করেই। নিজের মুখতো দেখিই! চারপাশের কোন কিছু দেখা থেকে আমার চোখ বাদ যায় না। খাদ্যে ভেজাল আমাদের দিনের পর দিন সামাজিক সমস্যা হলেও আমি মনে করি, সরকার চাইলে এই সমস্যা এক সাপ্তাহের মধ্যে দূর করতে পারেন। এক রাতে সারা শহরের বিলবোর্ডে যদি সরকার তাদের সাফল্যের কথামালা লাগিয়ে দিতে পারে তবে এই ভেজাল রোধ কেন করতে পারবে না।

ভেজালের কারনে আমাদের সমূহ ক্ষতিতো হচ্ছেই! আমরা মৃত্যর দিকে এগিয়ে যাচ্ছি, আমাদের জেনারেশন নষ্ট হয়ে যাচ্ছেই, আরো কত কি। এদিকে ভেজালের কারনে দ্রব্য মুল্য বেশী হচ্ছেই। যেমন ধরা যাক, মাছের কথা। একজন মাছ বিক্রেতা যখন জানেন, তার মাছ পচবে না তখন কেন তিনি দাম ছেড়ে বিক্রি করবেন। অন্যরা বিক্রি করে শেষ করলে তিনি তখনো শুরু করতে পারবেন! আর না বিক্রি হলে আগামী কাল আবার বের করতে পারবেন। দ্রব্য মুল্য বৃদ্দিতে তাই ভেজালের ভুমিকা অপরিসীম! সে যাই হোক, ভেজালের কথা চিন্তা করলে, আমার মাথায় রক্ত উঠে যায়। সাপের মত পিটিয়ে মারতে ইচ্ছা হয় সরকার বাহাদুরদের, যাদের আমরা নির্বাচিত করেছি আমাদের দেখার জন্য, তারা সবাই চুপ! গনমানুষ মরলে আসলে তাদের কি! টাকা দিয়ে তারা তো বিদেশী পানি পান করছে, নিজ খামারের পালিত মাছ খাচ্ছে!

যাই হোক, সামান্য শক্তি দিয়ে আর কি করবো তবে একদিন জনতা জেগে উঠবেই, এই সব নিলর্জ বেহায়াদের থেকে সাধারন মানুষ মুক্তি পাবেই। আমাদের প্রত্যহ কোন না কোন ভাবে বাঁচতে হবে, খেতে হবে।

(সামুদ্রিক বাইল্যা মাছ। কেজি ৭০০ টাকা! মাছ দোকানদার পরিচিত বলে আমাকে ৫০ টাকা ছাড় দিয়েছে! ভেবে পাই না, এত দাম কেন হবে!)

যাই হোক, আপনাদের মনের দুঃখে অনেক কথা বলি। তবে যে কোন অবস্থায় আমি খাদ্যে ভেজাল চাই না। আপনারা মনে দুঃখ নেবেন না। এই বাংলাদেশ আমার, আপনার সবার। সবার বেঁচে থাকার অধিকার আছে। আপনাদের কাছে না বললে কার কাছে বলব।

চলুন মাছ রান্না দেখে ফেলি। প্রবাসী, ব্যচেলর এবং নুতন রান্নায় আগ্রহীদের জন্য এই চেষ্টা। রান্নার অপর নাম ভালবাসা। আপনি যাকে ভালবাসেন তাকে নিজ হাতে রান্না করে খাওয়ান, দেখুন কি করে ভালবাসা বেড়ে যায়। হা হা হা…

প্রয়োজনীয় উপকরনঃ
– একটা বাইল্যা মাছ (মাথা লেজ সহ, গোল করে কাটা)
– মাঝারি তিনটে পেঁয়াজ কুঁচি
– কয়েকটা কাঁচা মরিচ
– এক টেবিল চামচ আদা বাটা
– এক চা চামচ রসুন বাটা
– এক কাপ মশলা মিক্স (কাপে ঝাল বুঝে হাফ চামচ মরিচ গুড়া, হাফ চামচ হলুদ গুড়া, এক চিমটি জিরা গুড়া, এক চিমটি ধনিয়া গুড়া নিয়ে পানি দিয়ে এই মিক্সটা বানানো হয়েছে)
– তেল (পরিমান মত, কম তেলেই রান্না উত্তম)
– পানি (পরিমান মত)

প্রনালীঃ  (ছবি দেখেই বুঝতে পারবেন বলে আশা করছি, ছবি কথা বলছে)

ছবি ১


ছবি ২


ছবি ৩


ছবি ৪


ছবি ৫


ছবি ৬


ছবি ৭


ছবি ৮


ছবি ৯

সবাইকে শুভেচ্ছা। ভাল থাকুন।

13 responses to “রেসিপিঃ বাইল্যা মাছ রান্না (সাহস করলেই হয়)

  1. Vaijan, “Sahos” ta kiser Baila mas ranna kora , naki Baila mas kina??
    Ami to mone kori Baila mas kina tai Sahoser bepar!

    Like

    • ধন্যবাদ রেদোয়ান ভাই।
      আসলে কি বলবো। দিনের পর দিন সাহস হারিয়ে ফেলছি। মাছ কেনায় এখন বিরাট সাহস দরকার। আর ভেজাল রোধ না হলে আমাদের মত সাধারন আর বাজারেই যেতে পারবে না!

      ভাবছি আমিও সাহস আসলে কোথায়?

      শুভেচ্ছা।

      Like

  2. আমার খুব ফেভারিট একটি মাছ। ইউকে থাকার সময় অনেক রান্না করেছি এই মাছ। অনেক ধন্যবাদ ভাই আপনার রেসিপির জন্য। আমি নিজে মাঝে মাঝে রান্না করি কিন্তু অধিকাংশ সময় আমি আমার স্ত্রীকে অনুরোধ করি এইটা খাব ঐটা খাব। আপনার ব্লগটা অনেক কাজে আসে।

    Like

    • ধন্যবাদ কায়সার ভাই।
      রান্না যেহেতু জানেন তা হলে তো কথাই নেই। মাঝে মাঝে ভাবীকে ছুটি দিয়ে ভালবাসার বহিঃপ্রকাশ ঘটান! রান্নাই হচ্ছে ভালবাসা।

      বাইল্যা মাছ খুবই স্বাদের মাছ। আমার মনে হয় এই মাছ শুধু লবন দিয়ে সিদ্ব করে দিলেও খাওয়া যাবে।

      শুভেচ্ছা।

      Like

  3. রান্না’র চেহারা দেখেই মনে হচ্ছে মজা হয়েছে।
    আমাকে একটু পাঠিয়ে দিয়েন প্লিজ।

    Like

    • ধন্যবাদ বোন।
      কেমন আছেন? কেমন চাকুরী চলছে। বেতন ভ্রাতা পোষ্ট বাড়লো কি? আপনাদের সাথে অনেকদিন ছিলাম তাই আপনাদের কথা মনে পড়ে।

      হা, আজকাল রান্নায় বেশি মনোযোগ দিয়েছি। এখন প্রায় সব রান্নাই পারি! হা হা হা…

      শুভেচ্ছা। আশা করি মাঝে মাঝে এসে দেখে যাবেন।

      Like

  4. ওরকম সুন্দর তাজা মাছ আম্রিকা দেশে কুথায় পাব? 😦
    আপনার তরকারীর চেহারা দেখে মনের দুঃখে আমার বনবাসী হতে ইচ্ছে করছে। আমি এই মাছ পোড়ার দেশে কই পাই?!

    Like

  5. namanor age dhone pata pa bilati dhone pata dea jabe????

    Like

  6. ট্রাই করতে হবে,
    দেখে মনে হচ্ছে রান্নাটা খুউব ভালো হয়েছে.

    Like

  7. পিংব্যাকঃ এক নজরে সব পোষ্ট (https://udrajirannaghor.wordpress.com) | BD GOOD FOOD

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s