গ্যালারি

রেসিপিঃ আমের আঁচার (বোম্বাই মরিচ যোগে)


অনেকে আমাদের কাছে আঁচারের রেসিপি জানতে চেয়েছেন। আমরা আগে কয়েবার আঁচার বানালেও সেটা রেকর্ড করা হয় নাই। একবার যাও করা হয়েছিল তাতে সব কিছু মানে উপকরন দিয়ে পোষ্ট দেয়া হয় নাই। শুধু ছবি ব্লগ হিসাবে আপনাদের দেখানো হয়েছিল।

আজ দুপুরে আমাদের সেই সুযোগ এসে গেল! চলুন কথা না বাড়িয়ে আঁচার বানানো দেখি। তবে এটা একটা বিশেষ উদ্দেশে বানানো হয়েছে। আমার দুই বন্ধুর বাসায় দেয়া হবে বলে এটা বানানো হয়েছে। এটাকে শুধু আমের আঁচার বলা যাবে না, বলা যেতে পারে বোম্বাই মরিচের আঁচার! হা হা হা… আঁচারে একটু ঝাল না হলে কি চলে?

দুই ডিব্বা আঁচারের এই ডিব্বা যাবে বেইলী রোড এবং অন্য ডিব্বা যাবে থাইল্যান্ডের ব্যাংকক!

চলুন কথা পরে হবে আগে দেখে নিন। আপনি চাইলেও বানাতে পারেন। খুব একটা কঠিন কাজ নয়, তবে আঁচার বানাতে হাতে জোর থাকতে হবে।

উপকরনঃ
– দেশি টক কাঁচা আমঃ ১ কেজি
– বোম্বাই মরিচঃ ১৫/২০টা কাঁচা পাকা
– রসুন আস্তঃ বড় দুইটা
– আদা বাটাঃ ১ চা চামচ
– রসুন বাটাঃ ২ চা চামচ
– সরিষা বাটাঃ ১ কাপ বাটা অবস্থায় (সাদা সরিষা)
– হলুদ গুড়াঃ এক চা চামচ
– পাঁচ ফোড়ন গুড়াঃ ১ চা চামচ (ভেঁজে গুড়া)
– লবনঃ পরিমান মত
– সরিষার তেলঃ পরিমান মত (তবে আঁচারে তেল একটু বেশি দেয়া ভাল)

প্রনালীঃ

আম ও বোম্বাই মরিচ (এভাবে কাটুন, বোম্বাই মরিচ খালি হাতে কাটতে সাবধান। লাগলে খবর আছে!)


কড়াইতে তেল দিয়ে ভাল করে গরম করে নিন।


আদা ও রসুন বাটার সাথে লবন দিয়ে ভাল করে ভেঁজে নিন। আদা, রসুন ভাল করে ভাঁজা না হলে আঁচার নষ্ট হয়ে যেতে পারে।


এবার আম (যা কেটে ভিজিয়ে রেখে পানি ঝরিয়ে রাখা) দিন। অনেকে এখানে আম কিছুক্ষনের জন্য রোদে শুকিয়ে নেন, সেটাও চলে। পেপারে রেখে ফ্যান চালিয়ে পানি শুকিয়ে নিলেও চলে।


কিছুক্ষন ভেঁজে আমের উপর সরিষা বাটা দিয়ে দিন। ** খালি তেলে কখনো সরিষা বাটা দেবেন না, এতে তিতা বা শক্ত হয়ে যেতে পারে। আদা রসুনের সাথেও সরিষা বাটা দেয়া চলে না।


এবার সরিষার উপর এক চামচ হলুদ গুড়া দিন।


ভাল করে মিশিয়ে কষিয়ে নিন। বার বার নাড়তে থাকুন। খুন্তি দিয়ে আঁচারের নীচে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে নাড়ুন। লক্ষ রাখবেন আঁচার যেন কড়াইতে লেগে না যায়।


বোম্বাই মরিচ ফালি করা! দেখে প্রানে পানি আছে?


এবার বোম্বাই মরিচ দিন!


ভাল করে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে নাড়তে থাকুন। হাত থামালে চলবে না। মাধ্যম আঁচে।


আম নরম হলে আস্ত রসুন দিয়ে দিন এবং এই পর্যায়ে আস্ত রসুন এই জন্য যেন রসুন না গলে যায়।


ভাল করে কষাতে থাকুন। মরিচ গলে মিশে যেতে দিন। দুই একটা স্যাম্পল রাখতে পারেন।


নাড়াবেন এই স্টাইলে। খুন্তি মাঝে দিয়ে আঁচার ঘুরাবেন। এতে আমের আঁচার বেশী ভেঙ্গে যাবে না।


তেল উঠে আসবে এবং কড়াউতে আম লাগবে না।


এবার শেষ উপকরণ পাঁচ ফোড়ন (ভেঁজে গুড়া করে) দিয়ে দিন এবং ভাল করে মিশিয়ে নিন। এভাবে আরো মিনিট ২০ মাধ্যম আঁচে ভাঁজুন। স্বাদ এবং লবন দেখুন। আম বেশি টক হলে লবন আর একটু দিন।


ব্যস, হয়ে গেল মজাদার আম/বোম্বাই মরিচের আঁচার।


দুই ডিব্বা আঁচারের এই ডিব্বা যাবে বেইলী রোড এবং অন্য ডিব্বা যাবে থাইল্যান্ডের ব্যাংকক!

এই আঁচার ভাত, পোলাউ, বিবানী বা কোন খাবার মজা না হলে একটু নিয়ে খেতে পারেন। যারা ঝাল পছন্দ করেন না তারা এই আঁচার থেকে ১০০ হাত দূরে থাকুন!

সবাইকে শুভেচ্ছা।

কৃতজ্ঞতাঃ মানসুরা হোসেন

Advertisements

23 responses to “রেসিপিঃ আমের আঁচার (বোম্বাই মরিচ যোগে)

  1. দেখেই খিচুড়ি খেতে ইচ্ছা করছে। লোভনীয়! কিন্তু কোন চিনি বা গুড় দিতে হবে না?

    Like

    • ধন্যবাদ বোন।
      এটা ঝাল আঁচার। চিনি বা গুড়ের দরকার নেই। এটা টক এবং ঝালের স্বাদ। বেশি ঝাল কিন্তু। আপনারা মেয়েরা/বোনেরা/মায়েরা পেলে সাবাড় করে দেবেন বুঝতে পারছি। হা হা হা। তবে কিছু দিন রেখে দিলে আমের টকের কারনে ঝাল কমে যাবে।
      শুভেচ্ছা।

      Like

  2. আরিব্বাস!… যা একটা রেসিপি দিয়েছেন!… কতটুকু ঝাল হবে, সেটা কিছুটা ধারণা করতে পারছি… 😀

    Like

    • ধন্যবাদ ব্রাদার,
      হা, ভীষন ঝাল হয়েছিল। যাদের ঝাল প্রিয় তারা বেশ পছন্দ হবেই। মজার ব্যাপার আমার বেইলী রোডের বন্ধু এবং ব্যাংককের বন্ধুর স্ত্রী এই ঝালের ব্যাপারে কিছুই বলে নাই! হা হা হা।

      শুভেচ্ছা।

      Like

      • হে হে… সেটাই হবার কথা। যাদের ঝাল প্রিয়, তাদের কাছে কম ঝাল মানে হলো স্বাদ হয়নি। আমার সিলেটের কিছু আত্মীয় আছেন যারা তরকারির রঙ লাল না হলে খেতেই পারেন না। তার উপরে খাবারের টেবিলে এক টুকরা নাগা মরিচ থাকে, যেটাতে একটু কামড় না বসালে নাকি স্বাদ পূর্ণ হয় না! 🙂

        Like

  3. 100 haat dure thakar-e kotha but BINA JUDDHE NAHI DEBO SHUCHAGRO MEDINI…bombe morich-k long time pani-te vijiye rakhte hobe, then pani jhoria vinegarE vejabo, tarpor chheke tule aamEr sathe debo…Bhaiya, jhal kombe to. na?

    Like

  4. It is wonderful receipe. Anybody can cook. Thanks viya.

    Like

  5. জিহবাটাকে নিয়ে কি করি। ইচ্ছে করছে …

    Like

  6. ashadharon! amar tao ekhone khete esse korse…:)

    Like

  7. তেল কতটুকু দিব?

    Like

    • ধন্যবাদ বোন,
      হাফ লিটারের বেশি তো লাগবেই। এটা নির্ভর করবে আমের উপর, আম যত পুষ্ট হয় তেল তত বেশি লাগে। আর আচারে তেল বেশি হয়ে গেলে সেটা কাত করে কড়াইতে রেখে দিতে পারেন, অন্য কাজে লাগানো যাবে।

      শুভেচ্ছা।

      Like

  8. বাপের বাড়ীও নাই…শশুড় বাড়ীও নাই…

    শেষ ভরসা ..শাহাদাত উদরাজী ভাই…

    টুনা+টুনি মিলে ..গতকাল বোম্বাই মরিচের ঝালে….
    বানিয়ে নিলাম…আমের আচার…

    রেসিপিটা আমার প্রিয় রান্নাঘরের..

    ধন্যবাদ।

    বিঃ দ্রঃ ১৩.০৫.২০১৪ তারিখে বানিয়েছে।

    অনেক সুন্দর কালার ও স্বাদের হয়েছে!! উল্লেখ্য, টক,ঝাল, মিস্টি আচারটাও সেই রকম হয়েছে।

    Like

  9. wow…onek mojadar recipe. dekhei mone hocche moja hoyeche.
    vaia ekta request, ami gorur vuri rannar recipe chai. ami jehetu Us e ashar por day to day ranna r maximum recipe apnar ta follow kori, so kosto kore ekdin ranna kore felun jodi vuri kheye thaken. thanks in advance.

    Like

  10. wow…onek mojadar recipe. dekhei mone hocche moja hoyeche.
    vaia ekta request, ami gorur vuri rannar recipe chai. ami jehetu Us e ashar por day to day ranna r maximum recipe apnar ta follow kori, so kosto kore ekdin ranna kore felun jodi vuri kheye thaken. thanks in advance.

    Like

  11. পিংব্যাকঃ এক নজরে সব পোষ্ট (https://udrajirannaghor.wordpress.com) | BD GOOD FOOD

  12. ধন্যবাদ বোম্বাই মরিচের রেসিপি দেখে

    Like

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s