Gallery

মিষ্টি কুমড়া ভর্তা (মুখরোচক খাবার, মা দিবসের জন্য)


আজ বিশ্ব মা দিবস। মায়ের জন্য এই দিনে আমরা সবাই একটু বেশী ভালবাসা প্রকাশ করি। মায়ের কথা আলাদাভাবে আমাদের মনে করিয়ে দেবার জন্য এই মা দিবস। আমি বলি মন্দ নয়। সারা বছর তো মাকে ভালবাসবোই, বিশেষ দিনে আর একটু বেশী, মন্দ কি।

বিবাহের পর প্রত্যেক নারী পুরুষের আসলে দুই মা হয়ে যায়। এই দুইজন মাকেই সমানভাবে দেখা উচিত বলে আমি মনে করি। আজকের এই মা দিবসে আপনি আপনার নিজ মাকে স্বরন করবেন কিন্তু আপনার শাশুড়ি মাকে স্বরন করবেন না তা হয় না। দুইজনের জন্যই কিছু করুন। ভাল লাগবে।

যাই হোক, আমার নিজের মা গত পরশু বিদেশ গেছেন। কাজে কাজে উনাকে কাছে পাচ্ছি না। আর শাশুড়ি মা অনেক আগেই এই দুনিয়া ছেড়ে চলে গেছেন। কাজে কাজেই দুই মায়ের জন্যই আমার আজ কিছু করার নেই। দুই জন্যের জন্য দোয়া করি, একজন ভাল ভাবে বেঁচে থাকুন আর অন্যজন বেহেস্তে আনন্দে সময় কাটাক।

সে যাই হোক, আমার মায়ের একটা অভ্যাসের কথা বলি। আমরা যখন ছোট ছিলাম, প্রায়ই দেখতাম বিশেষ করে গরমের কালে, সকাল ১০/১১ টা হলেই তিনি কিছু না কিছু দিয়ে একটা ভর্তা বানাতেন। কাঁচা আম, কাঁচা পেঁপে, বরই, মুচি ইত্যাদির সাথে তেঁতুল, লবন, মরিচ, ধনিয়া পাতা ইত্যাদি দিয়ে কিছু না কিছু একটা ভর্তা (মুখরোচক খাবার) বানাতেন এবং আমাদের খেতে দিতেন। আজ আমার সেই সব সোনালী দিনের কথা মনে পড়ছে।

ঘরে এই ধরনের ভর্তা বানানোর জন্য তেমন কিছু দেখছি না। রান্নাঘরে যেয়ে একটুকরা মিষ্টি কুমড়ার দেখা পেলাম। সামান্য কেটে মুখে চিবুতেই বুঝতে পারলাম, এটা দিয়েও এমন ধরনের ভর্তা হবে! ব্যস, কাজে লেগে গেলাম! হয়ে গেল মিষ্টি কুমড়ার ভর্তা। আমার আম্মা নিশ্চয় আমার এই কাজ দেখে খুশি হবেন।

চলুন দেখে ফেলি।

ছবিটা আগের তোলা।

পরিমান ও প্রনালীঃ

মিষ্টি কুমড়া কুঁচিয়ে নিন।


উপকরণ হিসাবে তেঁতুল, লাল মরিচ, কাঁচা মরিচ কুচি, লবন, ধনিয়া পাতার কুঁচি ও সামান্য চিনি নিন।


ভাল করে হাত দিয়ে কচলিয়ে নিন। স্বাদ দেখুন, লবন, চিনি, তেঁতুল যা লাগে তা দিন।


ব্যস হয়ে গেল মুখরোচক ভর্তা। এই ধরনের ভর্তা দুপুরের আগে বেশ জমিয়ে তোলে। যে কোন কিছুকে মাষ্টার চিন্তা করে আপনিও এই ভর্তা বানাতে পারেন। আর আমি মিষ্টি কুমড়া নিয়েছি বলে আপনি হয়ত হাসছেন, না খেলে তো হাসবেনই! একবার বানিয়ে খেয়েই দেখুন না, বাটি সহ খেয়ে ফেলতে পারেন! হা হা হা…


বানাতে অনেক সময় লাগলেও খেতে লাগে মিনিট খানেক। সামান্য করে স্যাম্পল পাঠিয়ে ছিলাম আমাদের পাশাপাশি তিন বাসায়। রিপোর্ট ওকে, সবাই ভাল লেগেছে বলে জানিয়েছেন।

বিশ্ব মা দিবসে দুনিয়ার সব মাকে জানাই শুভেচ্ছা ও সালাম। মা না থাকলে আমাদের এই দুনিয়া দেখা হত না, মা।

Advertisements

7 responses to “মিষ্টি কুমড়া ভর্তা (মুখরোচক খাবার, মা দিবসের জন্য)

  1. Good for helth..i think it iesty also..
    Thanks Shadat bhai…..

    Like

  2. aj sosurbarite misti kumrar vorta bania sbik khawalam…sotti khub mja hoyeclo and sbi mja kre kheyecen…onek dhonnobad ato valo akta recipie deyar jnne

    Like

    • ধন্যবাদ বোন।
      আপনি এটা কি করলেন! হা হা হা… এটা আমার একটা টেষ্ট এক্সপেরিমেন্ট ছিল।
      যাই হোক, খাবার তো খাবারই, ভাল লেগেছে জেনে খুশি হলাম। আমার কাছেও ভাল লেগেছিল। টক, মিষ্টি, ঝাল!

      শুভেচ্ছা।

      Like

  3. পিংব্যাকঃ এক নজরে সব পোষ্ট (https://udrajirannaghor.wordpress.com) | BD GOOD FOOD

  4. আমার জানা ছিলনা কাঁচা ভর্তা করা যায়.,অনেক ধন্যবাদ আপনাকে…superb yummy

    Liked by 1 person

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s