গ্যালারি

রেসিপিঃ বোয়াল মাছ ভাজা (আখাউড়া বিলের বোয়াল)


কয়েকদিন আগে আমি নিজে বাজার থেকে একটা বোয়াল কিনেছিলাম ৫২০/= টাকা (টাকা না কাগজ!) দিয়ে এবং সেটা দিয়ে বোয়ালের ঝোল রান্না করে আপনাদের দেখিয়েছিলাম। আশা করি আপনাদের মনে আছে। পোষ্টটা এখনো প্রথম পাতা থেকে হারিয়ে যায় নাই। এদিকে আমার ব্যাটারী গত কয়েকদিন আগে আখাউড়া যান এবং ফিরে আসেন চারটে বোয়াল মাছ নিয়ে! মাছ গুলো আমার মামা শশুর তার ভাগনীকে (আমার ব্যাটারীকে) দিয়েছেন। অফিস থেকে বাসায় ফিরে গেলে তিনি আমাকে মাছ গুলো দেখান এবং পরামর্শ চান, কি করে রান্না করবেন।

মামা শশুর এক সাথে এত মাছ কেন দিলেন, তা ভেবে পাচ্ছিলাম না। তবে আলাপচারিতায় জানলাম, মামা বিলে মাছের গাই নাকি কিনে নেন। এক সিজনে মামা এই মাছের ব্যবসা করেন ভৈরবে এবং আরো জানালেন এখন মামাদের সাথে তেমন যোগাযোগ নেই, থাকলে মাছ কাকে বলে বুঝিয়ে দিতেন!  ছোট বেলায় তিনি দেখেছেন, মামারা কত বড় বড় মাছ দিয়ে যেতেন। হা, মামারা দেবে না তো কে দেবে?

আমি চান্স পেয়ে জানালাম, অনেক দিন ধরে বড় শোল মাছ খাবার ইচ্ছা আছে, মামাদের বলার জন্য যে, ভাগ্নী জামাই সোল মাছ খেতে চায়! আমার ব্যাটারী জানালেন, ‘তোমাকে মামারা খুব পছন্দ করে, তুমি বললে বাসায় এনে দিয়ে যাবেন’। আশা করি আমার মনের আশা পূর্ন হবে। যাই হোক, এত বোয়াল মাছ দেখে কি কি রান্না হবে ভাবছিলাম। তবে বোয়াল মাছের ঝোল যেহেতু একবার হয়ে গেছে তখন এমন রান্না আর চলবে না। এদিকে আমি যে মাছই পাই না কেন তা দিয়ে একটা ভাজির ব্যবস্থা করি। কাজে কাজেই আমি বললাম, চল বোয়াল মাছ ভাজা করে খেয়ে দেখি। সাধারন মাছ ভাজি যেভাবে করা হয়।  যদিও কখনো বোয়াল মাছ এই ভাবে ভেজে খেয়েছি কি না মনে করতে পারছি না। আমাদের বাসায় সাধারণত বোয়াল মাছ কিনলে ঝোল টাইপের রান্নাই হত।


বোয়াল মাছ গুলো খুব তাজা আর ফরমালিন মুক্ত (!) তাই এই মাছে আমার আলাদা একটা আনন্দ হল।

চলুন কথা না বাড়িয়ে বোয়াল মাছ ভাজা দেখে নেই। আশা করি আপনারাও আমাদের মত একবার চেষ্টা করে দেখতে পারবেন।

প্রনালীঃ

লেজ গুলো দিয়ে একদিন আবার ঝোল রান্না করব। বোয়াল মাছের লেজের ঝোল আমার প্রিয়।


বোয়াম মাছ ভাজার জন্য চারটে টুকরা আলাদা করে নিলাম।


হলুদ, মরিচ, জিরা গুড়া, এক চিমটি পাপড়িকা (আপনাদের না থাকলে নাই), লবন এবং সামান্য ফিস সস দিয়ে ভাল করে মাখিয়ে নিন।


কিছুক্ষন মানে মিনিট ২০শেক নরমাল ফ্রীজে রেখে দিন, ম্যারিনেটেড।


তেল গরম করে ভাজতে লেগে পড়ুন। (বোয়াল মাছ ভাঁজতে সাবধান, কিছু মাছ ভাঁজতে গেলে ফুটে উঠে, বোয়াল মাছের ক্ষেত্রেও তা হয়, ভাঁজতে দিয়েই ঢাকনা দিয়ে দেয়া ভাল)


এপিট ওপিট করে ভাজুন। মাছ লেগে গেলে খোঁচাখুঁচি না করে আঁচ কমিয়ে দিন, উঠে যাবে।


সব সময়ে ঢাকনা ব্যবহার করুন।


কিছু পেঁয়াজ কুঁচি ও মরিচ চিরে ভাজুন।


কিছু ধনিয়া পাতা কুঁচি ও দিতে পারেন। স্বাদ বেড়ে যাবে।


চুলার জ্বাল কমিয়ে দিন।


ব্যস পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত। আমি নিশ্চিত আপনারা অনেকে বোয়াল মাছ খেয়েছেন কিন্তু বোয়াল মাছ ভাজা খান নাই! কারন সব মাছ ভাজা চলে না, সব মাছ ভাজলে স্বাদও হয় না।

সবাইকে শুভেচ্ছা।

রেসিপিঃ বোয়াল মাছের ঝোল

Advertisements

9 responses to “রেসিপিঃ বোয়াল মাছ ভাজা (আখাউড়া বিলের বোয়াল)

  1. khete kemon hoyesilo bollen na????r dekhe khub valo lagse.r fish sos er brand er nam ta janale valo hoi

    Like

    • ধন্যবাদ অজ্ঞাত ভাই/বোন।

      “আমি নিশ্চিত আপনারা অনেকে বোয়াল মাছ খেয়েছেন কিন্তু বোয়াল মাছ ভাজা খান নাই! কারন সব মাছ ভাজা চলে না, সব মাছ ভাজলে স্বাদও হয় না।” আসলে এই কথাতেই সব ফুটে উঠে। আমি যে রকম স্বাদ আশা করেছিলাম, সেটা হয় নাই, তবে চলে। সব মাছ ভাজি ভাল লাগে না, আমার মনে হয় বোয়াল মাছের ক্ষেত্রেও এমন। এই জন্যই হয়ত মায়েরা বোয়াল মাছ ভাজতেন না, কারনে ভাজলে মনে পড়ত। হা হা হা…

      আমরা যে ফিস সস ব্যবহার করি সেটা হচ্ছে Suree Brand এবং এটা থাইল্যান্ডের। বাংলাদেশের এখন প্রায় বড় গ্রোসারী শপে এই ধরনের সস পাওয়া যায়। বাংলাদেশে এখন শুধু সয়াসস বানাতে পারে, অন্য প্রায় সব সসই বিদেশী।

      সস নিয়ে একটা সেকশন গড়ে তুলব ভাবছি… http://wp.me/P1KRVz-wF

      আশা করি আমাদের সাথে থাকবেন। শুভেচ্ছা নিন।

      Like

  2. হিংসাইলাম।
    আমার কোন মামাশ্বশুর নাই। হায়!!
    কে পাঠাবে বোয়াল মাছ?

    Like

  3. ভাই খেতে ইচ্ছে করেছ ।কি যে করি

    Like

  4. পিংব্যাকঃ এক নজরে সব পোষ্ট (https://udrajirannaghor.wordpress.com) | BD GOOD FOOD

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s