Gallery

আপেল পাই রেসিপি: সাহাদাত উদরাজী আপনার জন্য (লেখকঃ সমুদ্রজল)


[লেখাটা বোন সমুদ্রজল লিখেছেন, অনুমতি সাপেক্ষে আমি কপি করে এখানে এনে রাখলাম। চমৎকার রেসিপি, আগামীতে বানিয়ে দেখব]

লিখেছেনঃ সমুদ্রজল (তারিখঃ ১৪ ডিসেম্বর ২০১১, ৪:১৯ পূর্বাহ্ন)

গাছ থেকে বা বাজার থেকে দশ বারোটা আপেল নিয়ে আসুন।

খোসা ফেলে পাতলা করে কেটে নিন। আপেল কাটার সাথে সাথে লালচে একটা রঙ ধরে যায় এজন্য লবন পানিতে ভিজিয়ে রাখতে পারেন মিনিট পাঁচেক।
এবার একটা ননস্টিক প্যানে আপেলগুলো হালকা আঁচে নাড়া চাড়া করুন খানিক সময়। নরম হয়ে আসলে আধা কাপ চিনি দেন আপনার পছন্দ মতন স্বাদে। খুব বেশী মিষ্টি হবে না টক মিষ্টি একটা ভাব থাকবে। বেশি চিনি বেশি জালে কড়া ভাজা যেন না হয় খেয়াল রাখবেন।

ময়দা দু কাপ, ঘরের তাপে রাখা বাটার দিয়ে মাখুন এক চিমটি লবন ও চিনি দিতে পারেন। বাটার দিয়ে মাখানো ঝুরঝুরে ময়দা বরফ শীতল পানি একটু একটু করে মিশিয়ে মন্ড তৈরী করুন। খুব বেশী পানি দিবেন না।

ওভেন ২০০ ফারেনহাইটে গড়ম হতে দিন। এইবার মাখানো কাই দুই ভাগ করে রুটি বেলে নিন, খুব পাতলা বা মোটা করবেন না। এবার বেকিং ট্রে তে একখানা রুটি দিয়ে আপেলের প্রিপারেশন বিছিয়ে দিন।

অন্য রুটি উপরে বিছিয়ে ঢেকে দিয়ে, ছুড়ি দিয়ে কয়েকটা পোছ দিয়ে দিতে পারেন। অথবা সমান ভাবে লম্বালম্বি কয়েক ভাগে রুটি কেটে নিতে পারেন। যা জালির মতন বিছিয়ে ইচ্ছা মতন ডিজাইন তৈরী করে নিবেন। আমার মতন ফাঁকি বাজি না করে সাজাবেন ভালোভাবে। আমি খাবারের গুণ আর মজার উপর বেশী প্রাধাণ্য দেই সাজানোর চেয়ে। ডিমের কুসুম উপরে ব্রাস করে ওভেনে ঢুকিয়ে দিন পনের থেকে বিশ মিনিটে হয়ে যাবে মজাদার আপেল পাই।

অনেকদিন আগে আপনার ছেলের জন্য দিয়েছিলাম হয়ে যাওয়া পাইয়ের ছবি তখন রেসিপি চেয়েছিলেন, সময় করতে পারছিলাম না তবে মনে ছিল।

নতুন ছবি জুড়ে দিলাম তন্ময়ের জন্য। এইমাত্র নামালাম এখনও গড়ম । ঠান্ডা হলে খেতে ভালো লাগবে।

রেসিপিটা এখানে প্রথম প্রকাশিতঃ
http://tinyurl.com/d39qxaj

Advertisements

3 responses to “আপেল পাই রেসিপি: সাহাদাত উদরাজী আপনার জন্য (লেখকঃ সমুদ্রজল)

  1. বোন সমুদ্রজল, আপনার অনুমতির জন্য ধন্যবাদ।

    ১৮ মে ২০১২, ১২:৩১ অপরাহ্ন তারিখে সমুদ্রজল বলেছেন
    লেখকের মন্তব্য
    রেখেদিন অনায়াসে ।
    কিন্তু কোথায় যে রাখবেন সে জায়গাটা দেখা দিল না ওখানে রেসিপির একটা সিন্দুক আছে মনে হয়। আমি সেখান থেকে কিছু নিতাম।

    আপনাকে এই রেসিপি ব্লগে আন্তরিক অভিনন্দন।

    Like

  2. দারুন!
    অনেকেই ভাবেন এসব খাবার একটু বানানো কষ্ট, কিন্তু সেটি ভুল। ঘরে বসেই চমৎকার স্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরি সম্ভব এ খাবারগুলো।

    অসংখ্য ধন্যবাদ রইল সাহাদাত ভাই রেসিপিটি শেয়ার করবার জন্য।

    Like

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s