Gallery

রেসিপিঃ গরমে কাঁচা আমের শরবত


আজকাল যা গরম পড়ছে! এমন গরমে একটা শরবত হয়ে যাক। তবে শরবতের কথা উঠলে বলতে হয়, আমরা শরবতের কথা ভুলে যাচ্ছি! আমাদের পরবর্তী জেনারেশন মনে হয় শরবত বলতে কি, তা বুঝতে পারবে না। আজকাল আর ঘরে ঘরে শরবত বানানো হয় না। অথচ কত সহজেই শরবত বানিয়ে প্রান ভরে ফেলা যায়। এখন কাঁচা আমের দিন আসুন একটা আমের শরবত দেখি…।।


উপকরণঃ দুইটা কাঁচা আম, চিনি পরিমাণ মত, বিট লবণ এক চিমটি, দুইটা কাঁচা মরিচ, এক চামচ পুদিনা বাটা ও পরিমাণ মত ঠাণ্ডা পানি বা বরফ কুচি।


আম পুড়িয়ে নিন। যাতে কাঁচা আমের ভিতরটা নরম হয়ে যায়।


পোড়া আমের খোসা ছড়িয়ে নিন। আম ঠাণ্ডা হলে করুন নতুবা হাত পুড়ে যাবে…


ভাল করে মিহিন করে নিন।


তার পর সব কিছু জুসারে ভাল করে গ্রাইন্ড করে নিন। বরফ কুচি বা ঠাণ্ডা পানি দিতে ভুলবেন না…। চিনি এবং স্বাদ দেখে নিন।। যদি কিছুর প্রয়োজন হয় তবে তা দিন…।


প্রতি গ্লাসে একটি করে পুদিনা পাতা দিয়ে শরবতের একটা গ্লামার বাড়িয়ে দিতে পারেন।


কি চমৎকার দেখতে! আর খেতে… গরম থেকে বাসায় ফিরলে এমন এক গ্লাস শরবত খেলে সারা শরীর ঠাণ্ডা হয়ে যাবে… আর যে আপনাকে এমন বানিয়ে দিবে তাকে আপনি ধন্যবাদ দিতে ভুলবেন না…।


শরবত আসলে ভালবাসার প্রতীক…।

31 responses to “রেসিপিঃ গরমে কাঁচা আমের শরবত

  1. হ্যা ভাই, শরবত আসলে ভালবাসার প্রতীক…।

    Like

  2. বাহ! দারুন!
    আমিও কিন্তু দু’তিন ধরনের শরবত বানাতে পারি কাঁচা আম দিয়ে। একদিন না হয় শেয়ার করা যাবে।

    ত্প্ত দিনের জন্য আবশ্যক এক পোস্ট। সকলের হতে ধন্যবাদটা না হয় আমিই দিয়ে দিলাম প্রিয় সাহাদাত ভাই।

    Like

    • ধন্যবাদ দাইফ ভাই। গরমে শরবতের তুলনাই হয় না। আমার বাবাকে দেখতাম, শরবত পান করতে… বাবা বাজার কিংবা অফিস থেকে ফিরলে আম্মা শরবত বানিয়ে দিতেন… কিন্তু সেই সময় কি আর আছে?

      বাজার থেকে গরমে গামে দুইহাত ভরে বাজার নিয়ে গেলেও কি আর শরবত পাওয়া যায়!

      Like

  3. হা হা হা, আপনার তো শরবত বানিয়ে দেবার মানুষ আছেন। তো এত আফসোস কেন?

    Like

  4. আহ! আমারতো এখনই খেতে ইচ্ছে করছে!

    Like

  5. Dosto, amader BKK a tok aam pawa jai na. Paka ta to mitha, Kaancha tao mitha, Ei mitha aam diya ki tomar Shorbot banan jabey?? Naki ektu tetul diye nibu. Oh, Ekhankar tetul o to Mishti.

    Like

    • আরে এ যে দেখছি বন্ধু সেলিম! তোকে দেখে ভাল লাগল।

      রান্না বানায় তুই তো বেশ ওস্তাদ মানুষ। ব্যাংককের তোর রান্নার কথা এখনো আমার মনে আছে! ভুলি নাই। আর কখনো যদি থাইল্যান্ডে আসি তবে তোর রান্নার বেশ কিছু রেসিপি তুলে নিয়ে আসব এবং ব্লগে দিব।

      ভাতিজারা সহ ভাবী কেমন আছে? সালাম ও দোয়া থাকল।

      আমি মোটামুটি জীবনের লেজে গোবর লাগিয়ে দেখছি!

      যাক, ভাল থাকিস। মাঝে মাঝে লিখিস। ভাল লাগবে…।

      আশা করি আবারো দেখা হবে।

      (ব্লগার/রেসিপি প্রিয় বন্ধুদের বলি। সেলিম হচ্ছে আমার স্কুল জীবনের বন্ধু। কত বছর, কত সময় এক সাথে কাটিয়েছি! সেলিম এখন থাইল্যান্ডে স্যাটেলড হয়ে গেছে। ব্যাচেলর থাকাবস্থায় ও খুব ভাল রান্না করা শিখে গিয়েছিল। ব্যংককে ওর ট্যুরিজম ব্যবসা আছে। থাইল্যান্ডে যে কোন হেল্প লাগলে আপনারা ওকে কাজে লাগাতে পারেন।)

      Like

  6. আপনার সাইট অনেক ভাল লাগল রাজি ভাই। শুভকামনা

    Like

  7. 🙂

    Like

  8. ভালো আছি। আপনি কেমন আছেন?

    Like

  9. যা সব একের পর এক রেসিপি দিচ্ছেন দাদা, এদিকে তো পরবাসে বসে আমাদের অবস্থা খারাপ।

    Like

    • ধন্যবাদ সিষ্টার। আমার রেসিপির টার্গেট আপনারাই। আপনারা যখন কমেন্ট করেন তখন বেশ ভাল লাগে। আশা করি মাঝে মাঝে রেসিপি গুলো ট্রাই করে দেখবেন।

      পরবাসে হাতের কাছে সব কিছু পাওয়া সহজ। মনের আনন্দে নিজে নিজে দেখতে পারেন। হা হা হা…

      শুভেচ্ছা।

      Like

  10. আমি এটাকে বলি আমপোড়া শরবত। আসলেই দারুন স্বাদ!
    একটু ভাজা জিরে গুড়ো ছিটিয়ে দিলে আরো দারুন লাগবে।
    যারা চিনি খান না, তারা লবন, জিরার গুড়ো দিয়েই এটা খেতে পারেন।
    শরীর ঠান্ডা রাখে।

    Like

    • ধন্যবাদ রান্নাতো বোন। আজকাল মাথা ঠাণ্ডা রাখতে পারছি না, সামান্যতেই রেগে উঠছি!

      মাথা ঠাণ্ডা রাখার কোন শরবত থাকলে জানান।

      আপনার টিপস গুলো আমাদের পাথেয হয়ে থাকবে…

      শুভেচ্ছা।

      Like

  11. চমৎকার রেসিপি.
    কিন্তু ভাই, কেউ নেই তৈরি করে থাওয়াবার. 😦

    Like

  12. ধন্যবাদ ভাই , খুব ভাল লাগল আপনার রেসিপি : গরমে কাঁচা আমের শরবত

    Like

  13. আম পোড়া দিলে Vit- C তো আর থাকবে না, তাই না ভাইয়া?

    Like

  14. সময়োপযোগী রেসিপি। জাযাকাল্লাহ খাইরান।

    Liked by 1 person

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s