Gallery

রেড চিলি চিকেন (ভালবাসা দিবসের রান্না)


লিখেছেনঃ সাহাদাত উদরাজী (তারিখঃ ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০১২, ১০:৪৭ অপরাহ্ন)

সারাদিন নানা ঝামেলায় পার করেছি। খুব একটা ব্লগে আসতে পারি নাই। এখন মনে হচ্ছে মাঝে মাঝে ঢু মেরে যাওয়া উচিত ছিল, সবাই ভালবাসার কবিতা ও গল্প দিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু আমার কি হবে! আমি ভেবেছিলাম, এই ফেব্রুয়ারীতে প্রথম পাতায় রেসিপি দিব না, খালি বইপত্র খেয়ে/পড়ে বেঁচে থাকব! মনে হচ্ছে কথাটা ভুল! ভালবাসার দিনে যদি ভাল খাবার দাবার না হয় তবে ভালবাসা টিকবে কি করে?

মনে করা যাক, খুব ভালবেসে দুইজন প্রেমিক প্রেমিকা বিবাহ করল এবং আলাদা বাসা ভাড়া করে এই ভালবাসা দিবসে উঠে পড়ল কিন্তু দুইজনের কেহ রান্না জানে না! বুঝুন অবস্থা! আর যদি মেয়েটা বা ছেলেটা ভাল রান্না করতে জানে কিংবা দুইজনেই ভাল রান্না করতে জানে। তবে! ওয়াও! রান্নাঘর থেকেই শুরু হতে পারে আর এক অমর ভালবাসা! দৃশ্যটা কল্পনা করুন, দুইজনে মিলে রান্না করে টেবিলে বা মাদুরে খাবার গুলো নিয়ে বসে পড়ল। ওরা খেতে খেতে আলাপ করছে, একজন আর একজনের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছে! আহ।।।। বেহেস্তী আমেজ!

চলুন ভালবাসা দিবসের একটা রান্না দেখি, যার নাম আমি দিয়েছি ‘রেড চিলি চিকেন’। (ভালবাসার রঙ কি!) লাল মরিচের ব্যবহার বেশী করা হয়েছে বলেই। তবে আমাদের কাছে থাকা এই শুকনা মরিচ তত ঝাল নয় (এমন মরিচ গ্রামে পাওয়া যায়, মরিচ ক্ষেত শুকিয়ে যাবার আগে এমন মরিচ হয়, দেখতে বড় কিন্তু ঝাল নেই)। গ্রাম থেকে কিনে বিরাট ধরা কিন্তু এখন এই মরিচ দিয়ে আমরা বেশ মজা করেই নানান পদের রান্না করি। দেখতে ভাল লাগে! একটা অনুরোধ, ঝাল বেশী খাবেন না, এতে পরবর্তীতে নানান শারীরিক সমস্যা হয়। ঝাল থেকে দূরে থাকাই ভাল।


কেজি দেড়েক মুরগীর গোসত নিন। একটা মোরগে যা হয়।


মশলা পাতি (আজ শুধু ছবি দেখুন। আগামী কাল পুরো হিসাব/রেসিপি দিয়ে যাব। তবে যারা একটু মোরগ রান্না করতে পারেন তারা বুঝে যাবেন কিংবা মোরগ রান্নার আমার পূর্বের রেসিপি দেখতে পারেন)।


কড়াইতে তেল নিন। পেঁয়াজ কুঁচি ভাঁজুন। হালকা লবন দিয়ে দিন।


পেঁয়াজ হলদে রঙ হলে সব মশলা দিয়ে দিন। এবং ভাল করে আবারো কষান এবং তেল উপরে উঠা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। প্রয়োজনীয় লবন দিন।


এ রকম একটা অসাধারণ রঙ ধারন করবে।


কিছুক্ষন পরে গোসত দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন।


কষানোর পর কিছু পানি দিয়ে দিতে পারেন।


ঢাকনা দিয়ে মিনিট বিশেক জ্বাল দিন পরে এমন দেখাবে।


শুকনা মরিচ (ঝাল নাই) এবং কিছু রেরেস্তা (প্রথম দিকের পেঁয়াজ থেকে রাখা কিংবা বানিয়ে নেয়া) দিয়ে দিন।


ঝোল শুকিয়ে নিতে পারেন। আপনার ইচ্ছা। পুনরায় লবন দেখুন। হলে ওকে, না হলে দিন এবং ভাল করে মিশিয়ে নিন।


ব্যস পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত। টেবিলে নিয়ে চলুন।


পোলাউ হলে ভাল লাগবে।


এমন একটা সালাদ হতে পারে। শুধু টমেটো, পেঁয়াজ এবং কাঁচা মরিচ দিয়ে মাখানো।


ভালবাসার মানুষের সাথে কথা ও খাবার চলুক। ‘রেড চিলি চিকেন’ থাকুক সাথে! ভালবাসার রঙ লাল!

কৃতজ্ঞতাঃ মানসুরা হোসেন।

Advertisements

11 responses to “রেড চিলি চিকেন (ভালবাসা দিবসের রান্না)

  1. ভাল লাগল। আপনার জন্য শুভকামনা থাকল।

    Like

  2. আপনার রান্না দেখে লোভ লাগে! কবে আপনার মতো রান্না করে সবাইকে খাওয়াবো!

    Like

  3. সুস্বাদু খাবারের সুস্বাদু রেসিপি !!
    চমৎকার লাগলো সাহাদাত ভাই।

    Like

  4. আপনার পোস্টগুলোও পড়ে অনেক ভাল লাগে সাহাদাত ভাই।
    ধন্যবাদ রইল আপনাকে অনেক।

    Like

  5. Apnar rannar post dekhi, tarpor sheta ranna kori. Shedin lau shak r machh rannar recipe dilen. Lau shak ami seasonE ekbar-e kini jodio khete khub pochhondo kori. Ai shak ek aati-te onek beshi thake ja amader 2 joner jonne beshi r kata-o shomoyer bepar. Shedin kinlam, half vajlam, baki-ta pangsash machh dia ranlam. Thanku vaiya.

    Like

    • ধন্যবাদ বোন। পাঙ্গাস মাছের কথা মনে করিয়ে দেবার জন্য মাইনাস! অনেকদিন পাঙ্গাস মাছ খাই না!

      হা, ছোট পরিবারে একটু সামান্য বেশি রান্না করলেই শুধু টেবিলে গড়ায়! হা হা হা… আমি তাই কম রান্নায় আছি, তবে শাকের ব্যাপারে আমার না নাই, শাক আমি বেশি খাই!

      শুভেচ্ছা। আপনি আমাদের পুরাতন রেসিপি গুলো দেখেন বলে ভাল লাগে। তবে আমি আমার পুরাতন রেসিপি দেখি আর হাসি, কত কথা মনে পড়ে যায়! পুরাতন রেসিপির চেয়ে এখনকার রেসিপি গুলো অনেক বেশী জোস! হা হা হা…

      Like

  6. পুরো হিসাব/রেসিপি দিলেন না এখনো ?

    Like

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s