Gallery

তন্দুরি চিকেন


লিখেছেনঃ সাহাদাত উদরাজী (তারিখঃ ৬ ডিসেম্বর ২০১১, ৮:৪৬ অপরাহ্ন)

তন্দুরী/তন্দুরি চিকেন নাকি চিকেন তন্দুরি। নামে কি আসে যায়। তবে নাম দেখে বুঝা যায় অনেক কিছু। অনেক খাবারের আইটেমের মত এটা তেমন একটা জটিল নাম নয়। নাম দেখেই বুঝা যায়, এই চিকেন রেসিপি বানানো হয়েছে তন্দুরি দিয়ে। তন্দুরিটা কি? এটা হচ্ছে একটা উনুন বিশেষ। মটকা দিয়ে তৈরী বিশেষ চুলা। মাঝখানে আগুন জ্বলে চার পাশ গরম করে দেয়। চুলার ভিতরে তাপমাত্রা অনেক বেশি থাকে। তন্দুরি দিয়ে নানা পদের রুটি বানানো হয় এবং নানান কাবাব টাইপ খাদ্য বানানো হয়। চার পাশ দিয়ে আগুনের তাপমাত্রা একই সময়ে প্রায় এক রকম হয় এবং সেজন্য যে কোন কিছুর সমভাবে তাপ লাগে। আমি প্রথম তন্দুরি চিকেন খাই ঢাকার স্টার কাবাবে এবং বেশি খাই ম্যানচেস্টারে বাঙ্গালীদের ইন্ডিয়ান হোটেল সমূহে (আহ রে কপাল! রেস্টুরেন্ট বাংলা, মাল বেছে ইন্ডিয়ান)।

এখন কি অবস্থা জানি না, তবে আমাদের ছাত্রাবস্থায় এদের তন্দুরি চিকেনের নামডাক ছিল প্রচুর। আমরা দল বেঁধে খেতে যেতাম। এক পিস চিকেন লেগ সাইড, একটা নান রুটি খেয়ে এক কাপ চা। যে কোন কাবাবের চেয়ে এটার স্বাদ অনেক বেশী হত। কাবাব পোড়া পোড়া হলেও এই তন্দুরী চিকেন অত পোড়া হত না, লালচে রংগের কিন্তু ভিতরেও নরম। আমার মনে হয় এমন সুন্দর রং আসতো তন্দুরিতে পোড়ানোর জন্যই! আমার মতে, এটা আসলে চিকেন কাবাবই!

যাই হোক, আজ আমি আপনাদের চিকেন তন্দুরির মত করে চিকেনের একটা রেসিপি দেখাব। বাসায় খুব সহজেই বানিয়ে চিকেনের স্বাদ নিতে পারেন। অরিজিলান চিকেন তন্দুরি চিকেনের সব মশলাপাতি ব্যবহার করা হয় নাই বটে! নানা সস দিয়ে এটা বানানো হয়েছিল কিন্তু খেতে একদম তন্দুরি চিকেন! এখানে একটা কথা বলে নেই, আগুন এমন একটা ব্যাপার এবং মাছ মাংশ এমন ধরনের খাদ্য যে, আগুনে জ্বলসে দিলেও খেতে পারা যায়। চলুন দেখে ফেলি, কি করে কি হয়।


সামান্য সামান্য করে নানা পদের সস (হোয়াইট সস, ওয়েষ্টার সস, বারবী কিউ সস ও টমেটো সস) এবং তাতে সামান্য আদা বাটা, পেঁয়াজ বাটা, মরিচ গুড়া, কিছু লবন (পরিমান মত) মিশিয়ে একটা তরল বানিয়ে নিন। (ছবিটা বুঝানোর জন্য ব্যবহার করা হয়েছে মাত্র)


চিকেন পিস গুলো তাতে ভাল করে চুবিয়ে নিন, কিছু সময় রেখে দিতে পারেন। মিউনেটেড যাকে বলে।


পুরানো তাওয়া টাইপের কড়াইয়ে তেল গরম করুন এবং চিকেন দিয়ে ভাজতে থাকুন।


এ পিট, ও পিট করে ভাজতে থাকুন, অল্প আঁচে। একটু সময় লাগবে।


কেমন পোড়া পোড়া করবেন তা নিজেই ঠিক করে নিন।


ব্যস হয়ে গেল তন্দুরি ছাড়াই তন্দুরি চিকেন! পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত। ভাত, রুটি কিংবা আলু চিপসের সাথে বেশ মজাদার লাগবে।


চিকেনের ভিতরটা ভাল করে সিদ্ব হল কিনা লক্ষ্য রাখতে হবে মাত্র। খুব সহজ, বানিয়ে দেখতে পারেন। আমি নিশ্চিত, ছেলে বুড়ো সহ বাসার সবাই পছন্দ করবেই।

সবাইকে ধন্যবাদ।

(PhotoBucket to Google)

Advertisements

8 responses to “তন্দুরি চিকেন

  1. আরে, এতো একদম captain’s world এরটার মতোই। বাসাতে ট্রাই করতেই হবে।

    Like

  2. ধন্যবাদ শিবলী ভাই। আসলেই খুব সহজ। বানিয়ে দেখতে পারেন। আপনার মেয়েরা পছন্দ করবেই বলে আমি নিশ্চিত।

    ভাল থাকুন। আপনার উৎসাহ মনে থাকবে চিরকাল।

    Like

  3. amar meye der khob pochonder ekta khabar..thanks

    Like

  4. picture dekha jachche na keno? step by step picture thake bolei apner recipe bujha easy.tai plz picture jeno dekha jay!!!!

    Like

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s