ফলফলাদি চিনুন


আম দিয়ে শুরু করি। কোন বাংলাদেশী আম খায় নাই এমন চিন্তা করাও যাইয় না। দুই ধরনের আম,  কাঁচা এবং পাকা।

কাঁচা আমের কদর খুব বেশী। এই গরমে কাঁচা আম দিয়ে শরবত, কাঁচা আমের ভর্তা! আহ।


পাকা আম। আম দিয়ে দুধ, ভাত নিয়ে আমদুধভাত খেতে পারেন।

চলুন পিউর কিছু দেশী ফল দেখে ফেলি।

আমাদের দেশী ফল, আতা। আতা ফল কে কে খেয়েছেন এবং জীবনে কয়বার! আতা গাছে তোতা পাখি!


পেয়ারা, বাংলার আপেল!


পেঁপে। পাখি পাকা পেঁপে খায়। বলুন দেখি কয়বার পারেন!


তরমুজ, গরমে আরাম! (দেশের এই বড় বড় তরমুজ দেখে প্রান জুড়ে যায়!)


বেশী তরমুজ, সাইজ ছোট কিন্তু খেতে মজা।


শুকনা বরই, কুল!


নরসিংদীর সাগর কলা, সবরি কলা।


অবশ্য যে ফল প্রায় সারা বছর ফুটপাতের চা দোকানে দেখা যায়, তা হচ্ছে কলা। যে কোন চা দোকানে এই ফল পাবেন।


তেঁতুল কি ফল নয়!


সফেদাকে আমি এক সময় বিদেশী ফল মনে করতাম। এটা আসলে আমাদের একটা নিজস্ব ফল কিন্তু কেন জানি মার্কেট দখল করতে পারে নাই। আমি কয়েকবার কিনেছি, বাসায় কেহ একসেপ্ট করতে চায় নাই!


কচি ডাব। আল টাইম আল সিজন।


বেল। বেল পাকিলে তাতে কাকের কি! বেলের শরবত শরীরে একটা আলাদা জোস আনে।


লম্বা বাঙ্গি! এত বাঙ্গি কে খায় আমার জানতে ইচ্ছা হয়। গোল বাঙ্গির ছবি পেলেই লাগিয়ে দেব। মিস করেছি। আমি হাতে গোনা কয়েকবার বাঙ্গি খেয়েছি। দেখেই প্রানে শান্তি!


বিক্রেতা জানাল, মধুপুরের আনারস।


কাঁঠাল দেখে বেশ আনন্দ পেলাম। শাপলা চত্ত্বরের উত্তরে ফুটপাতে একজন মাত্র ফল বিক্রেতার কাছে একটাই কাঁঠাল দেখলাম! দাম জিজ্ঞেস করার সাহস হয় নাই! কাঁঠালটা অন্যান্ন ফলের মাঝে বেশ সুন্দর করে দাঁড়া কারিয়ে সাজিয়ে রাখা হয়েছিল। কাঁঠাল আমাদের জাতীয় ফল, কিন্তু কাঠালের কদর দিনকে দিন শেষ হয়ে যাচ্ছে।

চলুন কিছু বিদেশী ফলাদির ছবি দেখি, যা বাংলাদেশে সচরাচর পাওয়া যায়। প্রথমে নানা প্রকারের আপেল।

লাল আপেল। সাউথ আফ্রিকা থেকে আগত।


সেমি লাল আপেল, ইজিপ্ট থেকে আগত।


সামান্য লাল আপেল, ব্রাজিল থেকে আগত।


সবুজ আপেল, ইন্ডিয়া থেকে আগত।


নাশপাতি, ইন্ডিয়া থেকে আগত।


কমলা, ইন্ডিয়া থেকে আগত।


মাল্টা, সাউথ আফ্রিকা থেকে আগত।


আঙ্গুর, ইন্ডিয়া থেকে আগত। কালো আঙ্গুর মিস করছি, পেলে ছবি লাগিয়ে দেব। আসলে বাংলাদেশে ফলফলাদির ইম্পোর্টার হাতে গোনা কয়েকজন, যারা যখন যা নিয়ে আসেন দোকানিরা তাই বিক্রয় করে থাকেন। এজন্য দেখবেন, একই ফল ময়মনসিংহ যখন দেখা যাচ্ছে তখন তা মতিঝিলেও, এটা শুধু বিদেশী ফলের ব্যাপারেই।


আনার। আনারকে আমি মনে করতাম দেশী ফল কিন্তু কথা বলে জানা গেল, দেশে এর বানিজ্যিক উৎপাদন এখনো হয় না। বাংলাদেশে বেশীর ভাগ আনার আসে মেরিকা থেকে।


সৌদি আরব থেকে আগত খেজুর! খেজুর বিক্রেতা জানালেন, ভাল বিক্রয় হয়। এই খেজুর বিক্রেতার রুচির প্রশংসা করতে হয়, নানান প্রকারের খেজুর খুব সুন্দর করে সাজিয়ে রেখেছেন।


আপনি চাইলে ফুটপাতে দাঁড়িয়ে নানান ফলের কিছু অংশ নানান মশলা দিয়ে খেয়ে দেখতে পারেন। গরীবের জন্য আরামদায়ক ব্যবস্থা!

ছবি গুলো গত ১৭/৪/২০১৩ তারিখে মতিঝিল বানিজ্যিক এলাকা থেকে তোলা হয়েছে। এই ছবি গুলো সাজিয়ে সামুতে তিনটে পোষ্ট দেয়া হয়েছে। চাইলে আপনিও দেখে আসতে পারেন।

মতিঝিল ফুটপাত, এই সময়ের ফলফলাদি (পর্ব ১)
মতিঝিল ফুটপাত, এই সময়ের ফলফলাদি (পর্ব ২)
মতিঝিল ফুটপাত, এই সময়ের ফলফলাদি (পর্ব ৩, শেষ)

3 responses to “ফলফলাদি চিনুন

[প্রিয় খাদ্যরসিক পাঠক/পাঠিকা, পোষ্ট দেখে যাবার জন্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। নিম্মে আপনি আপনার মন্তব্য/বক্তব্য কিংবা পরামর্শ দিয়ে যেতে পারেন। আপনার একটি একটি মন্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করে কয়েক কোটি বার। আপনার মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা থাকল। অনলাইনে ফিরলেই আপনার উত্তর দেয়া হবে।]

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s